দক্ষিণ সুরমায় রাস্তা বন্ধে বাধা দেওয়ায় মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানির অভিযোগ

প্রকাশিত : ১৪ জানুয়ারি, ২০২০     আপডেট : ২ সপ্তাহ আগে  
  

 

দক্ষিণ সুরমায় বাড়ির রাস্তা বন্ধ করে দেয়াল নির্মাণে বাধা দেওয়ায় সন্ত্রাসী হামলার শিকার হয়েছেন লাউয়াই উমর কবুল দালান বাড়ির বাসিন্দারা। প্রতিকার চাইতে গেলে পাল্টা মামলায় হয়রানির শিকার হয়েছেন বলে অভিযোগ করেন দালান বাড়ির মরহুম আব্দুল খালিকের পুত্র ছুফু মিয়া। মঙ্গলবার সিলেট প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করে তিনি এ অভিযোগ করেন।
লিখিত বক্তব্যে ছুফু মিয়া বলেন, ‘দক্ষিণ সুরমার ধরাধরপুর মৌজার ৪৪৭ খাতিয়ানের ১২৬ নম্বর দাগে এবং ছাপা ১৩৫ নম্বর দাগের ০.১৬ একর ভূমি বাড়ি ও চলাচলের রাস্তা হিসেবে আমরা বংশানুক্রমে ব্যবহার করে আসছি। যা সেটেলমেন্ট জরিপ, হালজরিপ এমনকি ৩১ ধরা মূলেও আমাদের নামে লিপিবদ্ধ আছে। সম্প্রতি জনৈক হাবিবুর রহমান বাউন্ডারী দেয়াল নির্মাণের সময় বাড়ির রাস্তা বন্ধ করে দিতে চাইলে তারা বাধা দেন এবং আইনের আশ্রয় নেন। পরে পুলিশ কর্তৃক ১৫৪ ধারা ও অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আদালত কর্তৃক ১৪৪ ধারায় হাবিবুর রহমানদের উপর নিষেধাজ্ঞাও জারি করা হয়।’
তিনি বলেন, চলাচলের রাস্তা বন্ধ করতে না পেরে হাবিবুর রহমান গত ৫ জানুয়ারি আবারো দেয়াল নির্মাণের চেষ্টা করে ব্যর্থ হন এবং ওইদিন বিকাল ৩টার দিকে ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসীবাহিনী দিয়ে তাদের বাড়িতে হামলা চালালে নারীসহ ৫ জন গুরুতর আহত হয়।
হামলার ঘটনায় তিনি মামলা করতে গেলে তাদের বাধায় তা সম্ভব হয়নি। উল্টো তাদের পরিবারের স্কুলছাত্রসহ ১০ জনের বিরুদ্ধে মামলা করেন হাবিবুর রহমান। পরে ৭ জানুয়ারি সিলেট মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট ৩য় আদালতে নালিশা মামলা দায়ের করলে আদালতের নির্দেশে ৯ জানুয়ারি লাউয়াই কবুল গ্রামের আব্দুল জব্বার লাল মিয়ার পুত্র রুফুল মাহমুদ, একই গ্রামের হাবিবুর রহমানের পুত্র ইয়াকুবুর রহমান, মৃত আজির উদ্দিনের পুত্র আমিন উদ্দিন, আক্কাছ মিয়ার পুত্র কামাল উদ্দিনসহ অজ্ঞাতনামা আরো ১০/১৫ জনকে আসামি করে দক্ষিণ সুরমা থানা পুলিশ এফ.আই.আর দায়ের করে। যার মামলা নম্বর ০৫(১)২০২০।
তিনি বলেন, তিনি ও তার পরিবারের সদস্যরা গত ৮ জানুয়ারি আদালত থেকে জামিন পেলে হাবিবুর রহমান তাদের বিরুদ্ধে আবারো চাঁদাবাজির আরেকটি মামলা (নং ০৭(১)২০২০) দায়ের করেন। যেখানে ২ শিশু-কিশোরসহ ৮জনকে আসামি করা হয়।
অভিযুক্তরা গ্রেপ্তার না হওয়ায় এবং হাবিবুর রহমানদের একের পর এক মিথ্যা মামলায় হয়রানির শিকার ছুফু মিয়া ও তার পরিবারের সকল সদস্য চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন বলেও সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ করা হয়। হয়রানি থেকে মুক্তি ও পরিবারের সদস্যদের নিরাপদ জীবন কামনা করে সংশ্লিষ্টদের সু-দৃষ্টি কামনা করেন ছুফু মিয়া।

আরও পড়ুন