ডিজিটাল সিলেট বিভাগের কার্যক্রম ও অগ্রগতি’ নিয়ে বিভাগীয় সাংবাদিকদের নিয়ে বিভাগীয় কমিশনারের মতবিনিময় সভায়

প্রকাশিত : 19 November, 2019     আপডেট : ৩ সপ্তাহ আগে  
  

সিলেটের বিভাগীয় কমিশনার মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান, পিএএ বলেছেন ‘মুজিব বর্ষ’কে সামনে রেখে আগামী বছরের ডিসেম্বরের মধ্যে সিলেট বিভাগকে ‘ডিজিটাল’ করা হবে। এ লক্ষে কাজ এগিয়ে চলছে। চলতি বছরের জুলাই থেকে সিলেট বিভাগের চারটি জেলার ই-ফাইলিংয়ের ক্ষেত্রে বেশ অগ্রগতি হয়েছে। এক্ষেত্রে সিলেটের চারটি জেলা দেশের শীর্ষ ৬টি জেলার মধ্যে অবস্থান করছে। গেল জুলাইয়ে সিলেট ছিল ১৬তম স্থানে, এখন ৬ষ্ঠ স্থানে। সুনামগঞ্জ ১৭তম স্থানে ছিল গেল জুলাইয়ে, এখন ২য় স্থানে। হবিগঞ্জ ছিল ৩য় স্থানে, এখন যৌথভাবে ১ম স্থানে। মৌলভীবাজার ছিল ১৩তম স্থানে, এখন যৌথভাবে ১ম স্থানে আছে।
মঙ্গলবার (১৯ নভেম্বর) দুপুর সাড়ে ১২টায় ‘ডিজিটাল সিলেট বিভাগের কার্যক্রম ও অগ্রগতি’ নিয়ে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় সভায় এসব তথ্য তিনি জানান । বিভাগীয় মিশনারের কার্যালয়ের হলরুমে এ মতবিনিময় অনুষ্ঠিত হয়।

তিনি আরো বলেন, গত ১লা সেপ্টেম্বর থেকে সিলেট বিভাগের ৪০টি উপজেলায় শতভাগ ই-মিউটেশন (অনলাইনে ভূমির নামজারি, www.land.gov.bd) চালু করা হয়েছে।সিলেট বিভাগে যেকোনো নাগরিক ৩৩৩ কল সেন্টারে ফোন করে এখন ৫০টির মতো সেবার আবেদন দাখিল করতে পারবেন।

৩৩৩ এর মাধ্যমে সরকারি সেবা প্রাপ্তির পদ্ধতির বিস্তারিত তথ্য, পর্যটন কেন্দ্রসমূহের তথ্য, সামাজিক সমস্যা (বাল্যবিবাহ, খাদ্যে ভেজাল, ভোক্তা অধিকার, মাদক, জুয়া, ইভটিজিং, পরিবেশ দূষণ, সরকারি সম্পত্তির ক্ষয়সাধন, পরীক্ষায় অতিরিক্ত ফি আদায়) প্রতিকারে জেলা প্রশাসক ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে অবহিতকরণ, ইসলামিক মাসআলা-মাসায়েল জানান, নিরাপদ অভিবাসন (বিদেশে গমন) সংক্রান্ত তথ্য ও অভিবাসনে প্রতারণার স্বীকার হলে অভিযোগ দাখিল, ই-টিন সংক্রান্ত তথ্য, রেলসেবা সংক্রান্ত তথ্য ও অভিযোগ দাখিল প্রভৃতি সেবা পাওয়া যাবে।

তিনি বলেন, কৃষক ৩৩৩১ নম্বরে ফোন করে তার এলাকার উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তার সাথে কথা বলে কৃষি সহায়তা নিতে পারবেন। পরীক্ষামূলকভাবে এ প্রক্রিয়া শুরু করে সফলতাও মিলেছে। সিলেট বিভাগের যেকোনো নাগরিক ৩৩৩ নম্বরে ফোন করে ছাদকৃষি সংক্রান্ত সকল সেবা গ্রহণ করতে পারবেন। এছাড়া এটুআই-এর উদ্যোগে ছাদকৃষি সংক্রান্ত একটি অ্যাপসও তৈরি করা হয়েছে। সিলেট বিভাগের সকল সরকারি দপ্তরের ছাদে ছাদকৃষি তৈরির উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে বলেও জানানো হয় মতবিনিময় সভায়।
মতবিনিময় সভায় উপস্থিত ছিলেন সিলেটের অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার তাহমিদুল ইসলাম, সাংবাদিক নেতৃবৃন্দের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, সিলেট প্রেসক্লাবের সভাপতি ইকরামুল কবির, সিলেট জেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি তাপস দাস পুরকাস্থ, সিলেট অনলাইন প্রেসক্লাবের সভাপতি মুহিত চৌধুরী, সিলেট জেলা প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি আজিজ আহমদ সেলিম,
সিলেট জেলা প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক শাহ দিদার আলম নবেল, সিলেট অনলাইন প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মকসুদ আহমদ মকসুদ প্রমুখ।

আরও পড়ুন



শাহ নজরুল ইসলামের মায়ের দাফন সম্পন্ন

সিলেট এক্সপ্রেস ডেস্ক: দেশের বিশিষ্ট...

বানিয়াচংয়ে বজ্রপাতে কৃষকের মৃত্যু

সিলেট এক্সপ্রেস ডেস্ক : হবিগঞ্জের...