জীবনটা সময়েরই সমষ্টি দ্বারা তৈরী। – ফ্যাংকলিন।

প্রকাশিত : ২৯ আগস্ট, ২০২০     আপডেট : ১ মাস আগে
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

নদী ভাঙ্গন তীব্র হচ্ছে সুনামগঞ্জে। অব্যাহত বৃষ্টি আর ভারত থেকে নেমে আসা ঢলে সৃষ্ট তিন দফা বন্যায় নদী ভাঙ্গনের ভয়াবহতা বাড়ছে। গত সপ্তাহে এই সংক্রান্ত খবর প্রকাশিত হয় দৈনিক সিলেটের ডাক-এ। এতে বলা হয়- নদী ভাঙ্গনে ঘর-বাড়ি, গাছ-পালা, জনপদ বিলীন হচ্ছে। বিশেষ করে নাইন্দা তীরবর্তী বাসিন্দারা বেশী ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছেন। বেশ কিছু পরিবার ভাঙ্গনের কবলে পড়ে নিঃস্ব হয়ে পড়েছেন। শুধু নাইন্দা নয়, সুনামগঞ্জ তথা সিলেট বিভাগের প্রায় সব ক’টি নদীতেই ভাঙ্গন হচ্ছে। ভাঙ্গনে নিঃস্ব হয়েছে অসংখ্য মানুষ। ভাঙ্গন অব্যাহত আছে। ভাঙ্গন রোধে কার্যকর উদ্যোগ চোখে পড়ছে না। যা-ও হচ্ছে সবই লোক দেখানো। এতে স্থায়ী কোন ফল আসছেনা। মাঝখানে সরকারের কোটি কোটি টাকা অপচয় হচ্ছে।
নদী ভাঙ্গন একটি প্রাকৃতিক দুর্যোগ। বিশেষজ্ঞদের মতে, পর্বত থেকে নদীর পানি সমুদ্রের দিকে ধাবিত হয়। সাধারণত সমুদ্রের কাছাকাছি অংশে নদীর পানি তীব্র গতিতে ছুটে চলে। বিশেষ করে বর্ষা মওসুমে বেড়ে যায় নদীর ¯্রােত। নদীর এই তীব্র ¯্রােত ভাটার দিকে প্রবাহিত হওয়ার পাশাপাশি নদীর তীরে আঘাত করতে থাকে। পানির এই ক্রমাগত তীব্র আঘাতে নদী তীরবর্তী ভূ-ভাগ ক্ষয় হতে থাকে। এক সময় মাটি ক্ষয় হতে হতে যখন ওপরের মাটির ভার সহ্য করতে পারে না, তখন ওপরের অক্ষয় মাটিসহ নদী তীরের বিশাল অংশ নদীর মধ্যে ভেঙ্গে পড়ে। যে কারণে ভাঙ্গন এলাকায় নদীর পানি হয় ঘোলা। একটি পরিসংখ্যানের তথ্য হচ্ছে- স্বাধীনতার পর থেকে ৪৯ বছরে নদী ভাঙ্গনে বিলীন হয়েছে প্রায় দুই লাখ হেক্টর জমি। অবশ্য এসময়ে বিভিন্ন স্থানে পানি জমে ভেসে ওঠেছে নতুন জমি। যার পরিমাণ প্রায় ৫০ হাজার হেক্টর। বছরে গড়ে চার হাজার হেক্টর জমি নদী ভাঙ্গনে বিলীন হচ্ছে। আর এতে গৃহহীন হচ্ছে বছরে কমপক্ষে আড়াই লাখ মানুষ। পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়ের তথ্য মতে, বাংলাদেশে ৮৫টি শহর ও বন্দরসহ মোট দুইশ’ ৮৩টি স্থানে ভাঙ্গন হচ্ছে প্রতি বছর।
নদ-নদী বিধৌত বাংলাদেশের আয়তনের আশি ভাগই নদ-নদী অববাহিকার অন্তর্ভুক্ত। দেশে ছোট বড় নদ-নদীর সংখ্যা প্রায় তিনশ’ টি। এসব নদ-নদীর তটরেখার দৈর্ঘ্য হচ্ছে ২৪ হাজার ১৪ কিলোমিটার। এর মধ্যে কমপক্ষে ১২ হাজার কিলোমিটার তটরেখাই নদী ভাঙ্গন প্রবণ এলাকা হিসেবে চিহ্নিত। নদী ভাঙ্গনে বদলে যাচ্ছে দেশের মানচিত্র; ঘর-বাড়ি-জমিজমা হারিয়ে গৃহহীন হচ্ছে মানুষ। নদী ভাঙ্গনের ফলে ভরাট হচ্ছে নদীও। নাব্যতা হারাচ্ছে। এতে বাড়ছে বন্যার প্রকোপ। সব মিলিয়ে নদী ভাঙ্গনের এই ধারাবাহিকতা রুদ্ধ করতে হবে। দীর্ঘদিন ধরে যে প্রক্রিয়ায় নদী ভাঙ্গন রোধ প্রকল্পের নামে কেবল সরকারী অর্থের লুটপাট হয়েছে, তার অবসান ঘটাতে হবে। নদী ভাঙ্গন রোধে প্রকৃত অর্থেই কার্যকর হয়, এমন প্রকল্প গ্রহণ করতে হবে।


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আরও পড়ুন