জিটিএফএর প্রাতিষ্ঠানিকতা টেকসইসরকারী কেনা কাটায় ভূমিকা রাখবে

প্রকাশিত : ১১ মার্চ, ২০১৯     আপডেট : ১ বছর আগে

মো. আব্দুল বাছিত:
সেন্ট্রাল প্রকিউরমেন্ট টেকনিক্যাল ইউনিট (সিপিটিইউ) এর মহাপরিচালক এবং বাস্তবায়ন পরিবীক্ষণ ও মূল্যায়ন বিভাগ(আইএমইডি), পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মো. আলী নূর বলেছেন, দেশের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধিকে ত্বরান্বিত করতে সকলের ঐক্যবদ্ধ প্রচেষ্টা অত্যন্ত জরুরী। ইতিমধ্যে বাংলাদেশ বিশ্বের অন্যতম উন্নয়নশীল দেশ হিসেবে প্রতিষ্ঠা লাভ করেছে। দেশের জনসংখ্যাকে মানবসম্পদে পরিণত করার জন্য তাদের সঠিক পরিচর্যা করতে হবে। সরকারী কেনাকাটায় জনগনের সম্পদের সঠিক ব্যবহার নিশ্চিত করতে জেলা ভিত্তিক গঠিত গভর্ণমেন্ট- টেন্ডারার্স ফোরাম (জিটিএফ)-এর প্রাতিষ্ঠানিকতা টেকসই ভূমিকা রাখবে বলে আমি প্রত্যাশা ব্যক্ত করছি।
সেন্ট্রাল প্রকিউরমেন্ট টেকনিক্যাল ইউনিট (সিপিটিইউ), বাস্তবায়ন পরিবীক্ষণ ও মূল্যায়ন বিভাগ, পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে সিলেটের বিভিন্ন ক্রয়কারী সংস্থা ও দরপত্র দাতাদের প্রতিনিধিদের জিটিএফ কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
সোমবার বিকালে সিলেটের জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে সিলেটের জেলা প্রশাসক এম. কাজী এমদাদুল ইসলামের সভাপতিত্বে কর্মশালায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন সিলেটের বিভাগীয় কমিশনার (ইনচার্জ) জনাব মৃণাল কান্তি দেব, বিশ্বব্যাংকের লিড প্রকিউরমেন্ট বিশেষজ্ঞ এবং ডিজিটাইজিং বাস্তবায়ন মনিটরিং ও পাবলিক প্রকিউরমেন্ট প্রজেক্ট (ডিআইএমএপিপিপি) এর টাস্ক টিম লিডার ড. জাফরুল ইসলাম, সিপিটিইউ, আইএমইডি এর পরিচালক (প্রশিক্ষণ ও সমন্বয়), শীষ হায়দার চৌধুরী, বাংলাদেশ সেন্টার ফর কমিউনিকেশন প্রোগ্রামের (বিসিসিপি) এর পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ শাহজাহান। এছাড়া কর্মশালায় শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন ডিআইএমএপিপিপি-এর প্রিন্সিপাল প্রজেক্ট ম্যানেজমেন্ট কনসালট্যান্ট মোস্তফা গাউসুল হক, সিপিটিইউ এর উপ-পরিচালক ও সিনিয়র সহকারী সচিব মো. সালাহ উদ্দিন এবং জিটিএফ সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করেন বিসিসিপি-এর সিনিয়র ডেপুটি ডিরেক্টর খাদিজা বিলকিস। ডিজিটাল ইমপ্লিমেন্টেশন মনিটরিং এন্ড পাবলিক প্রকিউরমেন্ট প্রজেক্ট-এর আওতায় সিপিটিইউ-এর এই কর্মশালা বিসিসিপির সহায়তায় আয়োজন করা হয়েছে। দরপত্রকারী সম্প্রদায় এবং ক্রয় কারী সংস্থার মধ্যে সংলাপ শুরু করাই কর্মশালার লক্ষ্য এবং এ লক্ষ্যে সিলেট বিভাগের জিটিএফের অধীনে দরপত্রকারী সম্প্রদায় এবং ক্রয় কারী সংস্থার কমকর্তারা ই-জিপি সহ সরকারী ক্রয় সংক্রান্ত বিষয়ে তাদের মতামত, ধারনা এবং অভিজ্ঞতার বিনিময় করেন এবং ফোরামের গঠনের পর থেকে গৃহিত কার্যক্রম গুলোর মূল্যায়ন করেন।
জিটিএফ টেকসই করতে এবং ৬৪ জেলায় ৬৪ টি জিটিএফ এর কেন্দ্রীয় একটি শীর্ষ সংগঠন তৈরির লক্ষ্য ও উদ্দ্যেশ্য নিয়ে আলোচনা করা হয়েছে। পাশাপাশি উন্নয়ন প্রকল্প বাস্তবায়ন নিরীক্ষণ ডিজিটাল করণের মাধ্যমে সরকারী কেনাকাটায় দক্ষতা ও স্বচ্ছতা বাড়ানোর জন্য সিপিটিইউ বিশ্ব ব্যাংক এর সহযোগিতায় এই কার্যক্রমটি বাস্তবায়িত হচ্ছে। এছাড়া মুক্ত আলোচনায় বক্তারা পিপিআর ও ই-জিপি, সরকারী ক্রয় চুক্তির সুষ্ঠ বাস্তবায়ন এবং ক্রয় সংক্রান্ত কোন অস্পষ্টতা বা বিভ্রান্তি দূর করতে জিটিএফ এর প্রাতিষ্ঠানিকতা প্রতি জেলায় ক্রয়কারী ও দরপত্র দাতাদের পারস্পপরিক বুঝাপরার পরিবেশ তৈরীর মাধ্যমে জনগণের সম্পদের যথাযথ ব্যবহার নিশ্চিত করার জন্য সংশ্লিষ্টদের প্রতি আহবান জানান। শেষে জিটিএফ-এর সিলেটের আহবায়ক কমিটি গঠন করা হয়। কর্মশালায় বিভিন্ন সরকারি, বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধিবৃন্দ এবং বিভিন্ন কনস্ট্রাকশনের স্টেইকহোল্ডাররা উপস্থিত ছিলেন।

আরও পড়ুন

আগামীকাল বুধবার শুর হচ্ছে মালেয়শিয়ান শিক্ষামেলা

নগরীর রোজভিউ হোটেলে উক্ত শিক্ষামেলা...

দক্ষিন সুরমায় চলন্ত বাসে অগ্নিকান্ড, রক্ষা পেল ৪০জন যাত্রী

দক্ষিণ সুরমার আলমপুরে একটি যাত্রীবাহী...

বাংলাদেশে ২৪ ঘণ্টায় ৩৭ জনের মৃত্যু, আক্রান্ত ২৬৯৫

বাংলাদেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে...