ছড়াকার কামরুল আলম-এর ৩৯তম জন্মবার্ষিকী আজ

প্রকাশিত : 25 November, 2019     আপডেট : ৩ সপ্তাহ আগে  
  

সিলেট এক্সপ্রেস ডেস্ক:বর্তমান সময়ের অন্যতম জনপ্রিয় ছড়াকার ও শিশুসাহিত্যিক কামরুল আলম-এর ৩৯তম জন্মবার্ষিকী আজ ২৫ নভেম্বর। ১৯৮০ সালের এই দিনে কামরুল আলম সিলেটের জকিগঞ্জে জন্মগ্রহণ করেন। তাঁর পিতা মরহুম করামত আলীও ছিলেন একজন স্বনামধন্য শিক্ষাবিদ ও কবি।

প্রায় দুই দশকেরও অধিক সময় ধরে দেশের বিভিন্ন জাতীয় দৈনিক, সাহিত্য সাময়িকী ও পত্রপত্রিকায় তাঁর শিশুতোষ, বিষয়ভিত্তিক, সমসাময়িক, রম্য এবং সিরিয়াস ছড়া প্রকাশিত হয়ে আসছে। ছড়ার পাশাপাশি গল্প, প্রবন্ধ এবং সমকালীন বিষয়ের ওপর কলামও লিখছেন তিনি। এ পর্যন্ত তাঁর প্রকাশিত একক বইয়ের সংখ্যা ১৪টি। এরমধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো-কিচিরমিচির (শিশুতোষ ছড়া), পড়ার মতো ছড়া (সমকালীন ছড়া), নীল আকাশের বুকে (কিশোর কবিতা), ছোটোদের ছুটি (শিশুতোষ ছড়া), লাল সবুজের মাঠে (শিশুতোষ ছড়া), লক্ষ ফুলের পাপড়ি (শিশুতোষ ছড়া), তিড়িং বিড়িং ফড়িং ধরিং (শিশুতোষ ছড়া), সোনার পাখি ও ভিনগ্রহের বাসিন্দারা (কিশোর গল্প), খাঁচার পাখি (কিশোর গল্প), একটি ফুলকে বাঁচাবো বলে (মুক্তিযুদ্ধ ভিত্তিক শিশুতোষ গল্প), সবুজের অবুঝ মন (শিশুতোষ গল্প) ইত্যাদি। সম্পাদনা করেছেন ‘ছড়িয়ে দিলাম ছড়ার আলো’ নামে সিলেটের ১৮জন ছড়াকারের ১৮০টি ছড়ায় সমৃদ্ধ একটি যৌথ ছড়াগ্রন্থ।

ছড়াকার কামরুল আলমের ৩৯তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে আজ ২৫ নভেম্বর সিলেটের কেন্দ্রীয় মুসলিম সাহিত্য সংসদের সাহিত্যআসর কক্ষে সমসাময়িক ছড়ার কাগজ ছড়াকন্ঠের উদ্যোগে এক জমজমাট ছড়াসন্ধ্যার আয়োজন করা হয়েছে। অনুষ্ঠানে ছড়াকার, কবি, শিশুসাহিত্যিক ও তাঁর শুভানুধ্যায়ীরা তাঁকে শুভেচ্ছা জানাবেন; অংশ নিবেন জন্মদিনের আড্ডায়। এছাড়াও তাঁকে নিবেদিত ছড়াপাঠ করবেন সিলেটের নবীন-প্রবীণ ছড়াকারগণ। তিনি নিজেও পরিবেশন করবেন তাঁর প্রিয় কয়েকটি ছড়া।

কামরুল আলম শুধুমাত্র একজন শিশুসাহিত্যিক-ছড়াকারই নন, একজন সম্পাদকও। তিনি বর্তমানে সিলেটের অন্যতম জনপ্রিয় দৈনিক জালালাবাদ-এর শিশু-কিশোর পাতা সপ্তডিঙার বিভাগীয় সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করছেন। পূর্বে তিনি দৈনিক প্রভাতবেলার শিশু-কিশোর পাতা অঙ্কুর-এর বিভাগীয় সম্পাদক ছিলেন। তিনি কেন্দ্রীয় মুসলিম সাহিত্য সংসদের প্রাক্তন নির্বাহী কর্মকর্তা। এছাড়া তাঁর সম্পাদনায় বের হয়েছে শিশু-কিশোরদের মনন বিকাশধর্মী কাগজ-কচি, শিল্পসাহিত্যের ছোটকাগজ-ধ্রুবতারা, সমসাময়িক ছড়ার কাগজ-ছড়াকণ্ঠ। বর্তমানে তিনি সৃজনশীল প্রকাশনী সংস্থা পাপড়ির কর্ণধার এবং তাঁর সম্পাদনায় নিয়মিত বের হচ্ছে পাপড়ি শিশু-কিশোর পত্রিকা। তিনি সিলেট শিশুসাহিত্য সংসদের প্রতিষ্ঠাতা ও নির্বাহী পরিচালক। তিনি ঐতিহ্যবাহী ছড়াসংগঠন ছড়াপরিষদ সিলেটের দপ্তর সম্পাদক ছিলেন। ছড়াসাহিত্য ও শিশুসাহিত্যে অবদানের জন্য এরই মধ্যে পেয়েছেন ঝাল সৃজনশীল ছড়াচর্চাকেন্দ্র সম্মাননা স্মারক, আমাদের ডাক শিশুসাহিত্য পদক। এছাড়া ছড়াপরিষদ সিলেট ও সিলেট সাহিত্য পরিষদসহ বিভিন্ন সংগঠন থেকে শ্রেষ্ঠ ছড়াকারের সম্মান অর্জন করেছেন বহুবার।

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে এমসি কলেজ থেকে রাষ্ট্রবিজ্ঞানে অনার্সসহ মাস্টার্স এবং সিলেট ল কলেজ থেকে এলএলবি ডিগ্রিধারী পেশায় ব্যবসায়ী ও নেশায় লেখক কামরুল আলম স্ত্রী এবং এক ছেলে ও মাকে নিয়ে বসবাস করছেন সিলেট শহরেই। তাঁর স্থায়ী আবাস সিলেটের জকিগঞ্জ উপজেলার মোহাম্মদপুর গ্রামে। ছড়াকার কামরুল আলমের বড়োভাই ড. জহরুল আলম কানাডার মেমোরিয়াল ইউনিভার্সিটিতে গণিত বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক। পূর্বে তিনি শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী অধ্যাপক ছিলেন। অপর বড়োভাই বদরুল আলম ইউনাইটেড আরব আমিরাতের ‘আল সানাওয়ার প্রিন্টিং প্রেসে’ ক্রিয়েটিভ ডিজাইনার হিসেবে কর্মরত। তাঁর একমাত্র বড়োবোন সুলতানা বেগম বিবাহিতা এবং চার সন্তানের জননী।

উল্লেখ্য ছড়াকার কামরুল আলমের ৩৯তম জন্মাবার্ষিকী উপলক্ষে তরুণ ছড়াকার মুয়াজ বিন এনামের সম্পাদনায় ছড়াকন্ঠের একটি বিশেষ সংখ্যা প্রকাশিত হয়েছে। কেমুসাস সাহিত্যআসর কক্ষে জন্মদিন উপলক্ষে আজকের ছড়াসন্ধ্যায় ছড়াকণ্ঠের জন্মদিন সংখ্যাটির মোড়ক উন্মোচন করা হবে। এতে উপস্থিত থাকার জন্য সংশ্লিষ্ট সবাইকে অনুরোধ জানানো হয়েছে। বিজ্ঞপ্তি

 

আরও পড়ুন



মুক্তমনা বিদ্বান সর্বকালে পূজনীয়

 মোহাম্মদ আব্দুল হক: মুক্তমনা লেখকদের...

এডভোকেট আ.ফ.ম কামালের ইন্তেকালে সিলেট মহানগর বিএনপির শোক

সিলেট এক্সপ্রেস ডেস্ক: বর্ষীয়ান রাজনীবিদ,...

রেগে গেলেন হেরে গেলেন

ইছমত হানিফা চৌধুরী :প্রচলিত একটা...