ঘুরে দাড়িয়েছে যুক্তরাস্ট এপ্রিলে সপ্তাহে সুস্থতা ছিল ১৫ হাজার,মে মাসে সপ্তাহে সুস্থ হওয়ার সংখ্যা লক্ষাধিক

প্রকাশিত : ১৪ মে, ২০২০     আপডেট : ২ সপ্তাহ আগে  
  

এমদাদ চৌধুরী দীপু(নিউইয়র্ক)
যুক্তরাস্ট্রে মে মাস এর শুরুতে মৃত্যু হার কমে আসছে ,কমে আসছে শনাক্ত হওয়ার সংখ্যা। এর বিপরীতে এক সপ্তাহে লক্ষাধিক লোকের সুস্থ হওয়ার খবর সবার জন্য আবেগের এবং শান্তনার। গত ৭ মে সুস্থ হওয়ার সংখ্যা ছিল ২ লাখ ১৭হাজার, এখন ৩ লাখ ১০ হাজারের উপরে। এদিকে ৭ মে মৃত্যু ছিল ৭৬ হাজার ৯২৮জন,এখন ৮৫ হাজার ১৯৭জন আর সপ্তাহে শনাক্ত হওয়া এপ্রিলের ৭ তারিখ থেতে ১৩ তারিখে ছিল প্রায় ৩লাখ, এখন সেটি ২লাখের নীচে নেমে এসেছে। ৭মে শনাক্ত ছিল ১২ লাখ ৯২ হাজারের উপরে এখন ১৪লাখ ৩০ হাজারের উপরে। এক সপ্তাহ ধরে যুক্তরাস্ট্রে করোনা ভাইরাস পরিস্থিতির আশাব্যঞ্জক উন্নতি হচ্ছে আবারো।
১৩মে নিউইয়র্কে ওজনপার্কে একজন বাংলাদেশীর করোনায় মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। এ নিয়ে বাংলাদেশীদের মৃত্যু ২৫৪ পার হলো। নিউইয়র্কে ২৪ ঘন্টায় মারা গেছেন মাত্র ১১৫জন,যুক্তরাস্টে মারা গেছেন ২৪ ঘন্টায় ১৭৭২জন। একদিনে সুস্থ হওয়ার সংর্খ্যা ২১ হাজারের উপরে। ১৪লাখ ৩০ হাজার ছাড়িয়েছে শনাক্ত হওয়ার সংখ্যা,মৃত্যু মোট ৮৫ হাজার ১৯৭জন,সুস্থ মোট ৩লাখ ১০ হাজার ২৫৯জন। কোটি পার হয়েছে টেস্টিং যা এককোটি ৩লাখের উপরে। সবগুলো প্যারামিটারে যুক্তরাস্ট্র উন্নতির সিড়িতে।
বিভিন্ন রাজ্য কিভাবে খোলে দেয়া হবে সে বিষয় এখন আলোচনায় উঠে আসছে। নতুন করে ২৩ হাজার জনকে শনাক্ত করা হয়েছে। নিউইয়র্কে এখন শনাক্ত হওয়ার সংখ্যাও কমে একদিনে ২হাজারের নীচে নেমে এসেছে। তবে নিউজার্সী সহ আরো ৫টি রাজ্যে অবনতি অব্যাহত রয়েছে। এই তালিকায় ম্যাসাচুসেট,ইলিনইস,ক্যালিফোর্নিয়া,পেনসেলভেনিয়া,ও মিশিগান,মেরিল্যান্ড রয়েছে। উপকুলীয় রাজ্যেগুলোতে উন্নতি হলেও মধ্য আমেরিকার রাজ্যগুলোতে প্রত্যাশিত উন্নতি হচ্ছেনা। এদিকে নাসিংহোমে দুই সপ্তাহের মধ্যে টেস্টিং সম্পন্ন করার সুপারিশ করেছে হোয়াইট হাউস। এ পর্যন্ত ২৭হাজার মানুষের মৃত্যু হয়েছে নার্সিংহোমে যা উদ্বেগের।
যুক্তরাস্ট্রের বরোনা চিত্র হচ্ছে এ রখম,৩০ হাজারের উপরে শনাক্ত ৬টি রাজ্যে,২ হাজারের উপরে শনাক্ত আরো ৩টি রাজ্যে,১০ হাজারের উপরে এমন রাজ্য রয়েছে ৮টি,বাকী গুলোতে শনাক্ত ১০ হাজারের নীচে কোথাও ৫ হাজারের নীচে। এসব মিলে যুক্তরাস্ট্রে করোনা নিয়ন্ত্রনে আসা একটি দীর্ঘমেয়াদী বিষয়।
এই দুই সপ্তাহে যুক্রাস্ট্রজুড়ে ৩০ লাখ নার্সিংহোম বাসিন্দার টেস্ট এর পাশাপাশি টেস্ট শুরু হচ্ছে নিউইয়র্কের বিভিন্ন চার্চে। টেস্টিং কার্যক্রম আরো বিস্তৃত করতে বিভিন্নমসজিদে টেস্টিং আয়োজনের দাবী জানানো হয়েছে।
ডনউইয়র্কে করোনা পরিস্থিতির উন্নতি হলে লকডাউন না তুলে ধাপে ধাপে নিউইয়র্ককে সচল করার ভাবনা রয়েছে বলে জানিয়েছেন সিটি মেয়র ব্লাজিও এবং রাজ্য গভর্নও এ্যান্ড্রো কোমো

আরও পড়ুন



স্বপ্নের দেশে যাওয়া হলো না

সিলেট এক্সপ্রেস ডেস্ক: আমেরিকার ভিসা...

ঐক্যফ্রন্টের কে কোথায় নির্বাচন করবে, তালিকা হচ্ছে

ধানের শীষ প্রতীকে নির্বাচন করবে...

অমর একুশে ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস’ আজ

সিলেট এক্সপ্রেস ডেস্ক: মহান ২১...