গ্যাস বিদ্যুতের মূল্য বৃদ্ধির পায়তারা বন্ধ না হলে অনশণ সহ কঠোর কর্মসূচী দেওয়া হবে …গ্যাস বিদ্যুত গ্রাহক কল্যাণ পরিষদ

,
প্রকাশিত : ২৯ জানুয়ারি, ২০২২     আপডেট : ৪ মাস আগে

গ্যাস বিদ্যুতের মূল্য বৃদ্ধির পায়তারা অবিলম্বে বন্ধ ও প্রি-পেইড মিটারের কাজ গতিশীল অলোপনকৃত এক লক্ষ কোটি টাকা সহ দূর্নীতিবাজদের কাছ থেকে হাজার হাজার কোটি টাকা উদ্ধার করে সরকারের রাজস্ব ভান্ডার শক্তিশালী করার দাবিতে গ্যাস বিদ্যুত গ্রাহক কল্যাণ পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির উদ্যোগে (২৯ জানুয়ারি) শনিবার বিকাল ৩টায় নগরীর চৌহাট্টা পয়েন্টে এক প্রতিবাদ সভা, কেন্দ্রীয় সদস্য সচিব জননেতা মকসুদ হোসেন এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়।
প্রতিবাদ সভায় বক্তারা গ্যাসের ন্যায় বিদ্যুতের মূল্য বৃদ্ধির প্রস্তাব নাকচ করার জন্য বিইআরসির প্রতি জোর দাবি জানিয়ে বলেন, গত ১০ বছরে দফায় দফায় বিদ্যুত ও গ্যাসের দাম বৃদ্ধির ফলে মানুষের জীবন যাপন কঠিন হয়ে পড়েছে। গত দুই বছর ধরে মহামারী করোনার প্রভাবে সাধারণ মানুষ বিপর্যস্ত থেকে আরও বিপর্যস্ত। আবার এই দাম বাড়ার বিষয়টি মরার উপর খাঁড়ার গাঁ হিসেবে দেখছেন জ্বালানী বিশেষজ্ঞরা। গ্যাস বিদ্যুতের খ্যাতে দূর্নীতি, অপচয়, অব্যস্থাপনা দূর করা হলে মূল্য বৃদ্ধি তো ধূরের কথা দাম কমানো সম্ভব। কিন্তু সরকার সেই দিকে না গিয়ে জনগণনের কাধে দূর্নীতি ও লুটপাতের ভোজা চাপানোর চেষ্টা করছে।
কেন্দ্রীয় সদস্য আমিন তাহমিদের পরিচালনায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় নেতা এডভোকেট মামুন রশীদ, আব্দুল মোতাওয়াল্লী ফলিক, তারেক আহমদ বিলাস, সরজ ভট্টাচার্য্য, সাংবাদিক শহিদ খাঁন, ব্যবসায়ী নেতা গুলজার আহমদ, দুর্নীতি মুক্তকরণ বাংলাদেশ যুব ফোরামের কেন্দ্রীয় সদস্য সচিব মাহবুর ইকবাল মুন্না, মরমী কবি আব্দুল আজিজ চৌধুরী, মো. আব্দুর রহামান আব্দুল্লাহ প্রমুখ।
সভাপতির বক্তব্যে মকসুদ হোসেন বলেন, গ্যাস বিদ্যুতের মূল্য বৃদ্ধির পায়তারা সংবাদে নির্দোষ সরলপ্রাণ অসংগঠিত লক্ষ লক্ষ গ্যাস বিদ্যুত গ্রাহকদের মধ্যে আতঙ্ক, চাপা কান্না ও উত্তেজনা বিরাজ করছে। এই বিল বৃদ্ধির পায়তারা বন্ধ করার জন্য সরকারের নিকট জোর দাবি জানান। পাশাপাশি গ্যাস বিদ্যুতের চুরি ও অপচয় বন্ধে প্রি-পেইড মিটারের কাজ ত্বরান্নিত করতে হবে। সর্বত্র পি-পেইড চালু হলে সরকারের রাজস্ব বাড়বে ও গ্রাহকের সাশ্রয় হবে।
সাফকতা
গণমত অপেক্ষা করে এই বিল বাড়ানোর প্রক্রিয়া শুরো হলে অনশণ সহ এই পূর্ণ ভুমি কঠোর কর্মসূচী দেওয়া হবে; ইনশাআল্লাহ।


আরও পড়ুন