গোয়াইনঘাটে মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমান্ডের উদ্যোগে সংর্বধনা অনুষ্ঠান

প্রকাশিত : ২০ এপ্রিল, ২০১৯     আপডেট : ৯ মাস আগে  
  

গোয়াইনঘাট (সিলেট) থেকে নিজস্ব সংবাদদাতাঃ গোয়াইনঘাট উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ফারুক আহমদ বলেছেন, মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে বুকে ধারণ করে গোয়াইনঘাট উপজেলাকে আধুনিক একটি উপজেলা হিসেবে রুপান্তর করাই হবে আমার মূল লক্ষ্য। ১৯৭১ সালে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আহ্বানে আমার পিতাসহ গোয়াইনঘাট উপজেলার প্রায় সহ¯্রাধিক মানুষ মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ করেন। এসময় সিলেটের গোয়াইনঘাট থেকে সবচাইতে বেশি মানুষ মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ করেছিল। তিনি বলেন, গোয়াইনঘাট উপজেলা থেকে বর্তমানে ২৫ হাজার টাকা করে ৪৪ জন যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা ভাতা পান। এছাড়াও ৭শত ৫জন বীরমুক্তিযোদ্ধা ১০ হাজার টাকা করে ভাতা পান। তিনি বীরমুক্তিযোদ্ধা সন্তান হিসেবে নিজেকে ভাগ্যমান মনে করেন। তাই আগামী গোয়াইনঘাট রুপান্তেরে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের পাশাপাশি সকল শ্রেণী পেশার মানুষের সার্বিক সহযোগীতা কামনা করেন। গতকাল শুক্রবার বিকেল ৩টায় গোয়াইনঘাট উপজেলা মিলনায়তনে উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমান্ড কর্তৃক আয়োজিত উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও ভাইস চেয়ারম্যানদ্বয়ের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে সংবর্ধিত অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমান্ডের সভাপতি কামাল হোসেনের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক গোলাম সরওয়ারের পরিচালনায় উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে সংবর্ধিত অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন নবনির্বাচিত ভাইস চেয়ারম্যান মাওলানা গোলাম আম্বিয়া কয়েছ, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান আফিয়া বেগম। অনুষ্ঠানে প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য রাখেন উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের কমান্ডার মোঃ আব্দুল হক। এসময় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন সাবেক চেয়ারম্যান সিরাজুল ইসলাম, জেলা মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমান্ডের সভাপতি সালাহ উদ্দিন পারভেজ, সাধারণ সম্পাদক জবরুল ইসলাম, যুগ্ম সম্পাদক তোফায়েল আহমদ রাজু, জেলা মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমান্ড নেতা শাহীন আহমদ সাবুল, আলাজুর রহমান, গোয়াইনঘাট প্রেসক্লাবের যুগ্ম সম্পাদক মো. আলী হোসেন, ইউপি সদস্য কামাল হোসেন, তাজ উদ্দিন, তোফায়েল আহমদ, চান মিয়া প্রমুখ।

আরও পড়ুন