গোয়াইনঘাটে ভুয়া নাগরিকশত্ব দিয়ে সহকারী শিক্ষক পদে নিয়োগ

প্রকাশিত : ৩০ জানুয়ারি, ২০১৯     আপডেট : ১ বছর আগে  
  

মনজুর আহমদ গোয়াইনঘাট থেকে:  ২০১৪ সালের প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক নিয়োগে চাকুরী বিধি লঙ্গন করে গোয়াইনঘাটে ভূয়া নাগরিকত্ব সনদে দুইজনের নিয়োগ বাতিলের দাবি তুলে গোয়াইনঘাট উন্নয়ন সংসদসহ এলাকার সর্বস্থরের সচেতন নাগরিক। প্রতিবাদ আর বিক্ষুভে উত্তাল হয়ে উঠে গোয়াইনঘাট। বিভিন্ন দপ্তরে দেয়া হয় লিখিত অভিযোগ। গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে এ বিষয়ে তদন্ত করেন সিলেটের জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তাসহ একটি তদন্ত দল। অভিযুক্ত শিক্ষিকা রাজমিন ভুল স্বীকার করে অব্যাহতির আবেদন দিয়েছেন তদন্তকারী কর্মকর্তা ও জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা বরাবরে। গোয়াইনঘাটে ভূয়া নাগরিকত্বে ২০১৪ সালের প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পদে ভুয়া নাগরিকত্বে নিয়োগ পাওয়ার অভিযোগ উঠে মিজানুর বহমান ও রাজমিন নাহার রুবির বিরোদ্ধে। এ ব্যাপারে উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কমিটি তদন্তদল গঠন করে মাঠ পর্যয়ে তদন্ত করে অভিযোগের সত্যতা পায়। গত দৃ’মাস পূর্বে আরেকটি বিভাগিয় তদন্ত হয়। কিন্তু কাজের কাজ কিছু না হওয়ায় গোয়াইনঘাটের সচেতন নাগরিক সমাজে ক্ষুব বিরাজ করে। গত ২৯ জনুয়ারী দপুরে সিলেটের জেলা প্রাথমিক শিক্ষাকর্মকর্তা ওবায়দুল্লাহ ও দুজন এডিপিইও এর উপস্থিতিতে আরেক দফা তদন্ত হয়। এ সময় শিক্ষিকা রাজমিন নাহার রুবা তার আবেদনে ভুল ঠিকানা দিয়ে চাকুরি পাওয়ার কথা স্বিকার করে চাকুরি থেকে অব্যাহতির আবেদন দেন তদন্তকারী কর্মকর্তা ও জেলা প্রাথমিক শিক্ষাকর্মকর্তা বরাবরে। তিনি তদন্তে উপস্থিত সকলের কাছে দোয়া চেয়ে বলেন“ আপনারা দোযা করবেন আমি যেন এক দিন এই অফিসের কর্মকর্তা হয়ে আসতে পারি”। অপর অভিযুক্ত শিক্ষক মিজানুর রহমান তার নাগরিক সনদ, আইডিকার্ড দাখিল করলে তাহা ভূয়া দাবী করে বিবাদী পক্ষ মিজানের প্রকৃত নাগরিকত্বের কাগজপত্র তদন্তকারী কর্মকর্তা বরাবরে দাখিল করেন এবং প্রতারনার আশ্রয়ে তথ্য গোপন করে চাকুরি নেয়ায় উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের ব্যবস্থা নিতে দাবী জানান। তারা তদন্তকারী কর্মকর্তাকে প্রকৃত সত্য উদঘাঠনের অনুরোধ জানান। এ সসয় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আওয়ামীলীগ’র সেক্রেটারী ইউপি চেয়ারম্যান গোলাম কিবরিয়া হেলাল, সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান লুৎফুল হক খোকন, গোয়াইনঘাট উন্নয়ন সংসদের সভাপতি এ্যাডঃ জামাল উদ্দিন, সমাজসেবি লুৎফুলহক, সুবাস চন্দ্র পাল ছানা, প্রধান শিক্ষক আব্দুস সহিদ, আহমদ মুস্থাকিন, নজরুল ইসলাম নজু, মুজিবুর রহমান, ছাত্রলীগ নেতা মাহফুজুল কিবরিয়া, গোলাম রব্বানি সুমন, আসাদুজ্জামান, মনসুর আহমেদ ডালিম, ফয়সল ইসলাম সহ গোযাইনঘাটের সচেতন নাগরিকবৃন্দ ও উন্নয়ন সংসদের নেতৃবৃন্দ। তারা জানান জালিয়াতি ও প্রতারনা করে নিয়োগ প্রাপ্তদের বিরোদ্ধে ব্যবস্থা না নিলে গোয়াইনঘাটবাসিকে নিয়ে কঠোর আন্দোলনের ডাক দেয়া হবে।

 

আরও পড়ুন



নৌকা প্রতীকই মানুষের ওদেশের উন্নয়ন এনে দিতে পারে

সিলেট এক্সপ্রেস ডেস্ক: বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের...

মদীনা মার্কেট এলাকায় মহানগর ৭,৮ ও ৯নং ওয়ার্ড বিএনপির লিফলেট বিতরণ

বিএনপি চেয়ারপার্সন দেশনেত্রী বেগম খালেদা...

ভাতালিয়ায় অর্ধশত শিশুকে বিনামূল্যে খৎনা

সিলেট এক্সপ্রেস ডেস্ক: সিলেট ভাতালিয়ায়...