খাদিম নগরের চাতলীবন্দে দেড়শতাধিক পরিবারে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ

প্রকাশিত : ৩০ মে, ২০২০     আপডেট : ১ মাস আগে

 

করুণা দুর্যোগকালে আসন্ন পবিত্র ঈদুল ফিতরের আনন্দ ভাগাভাগি করে নিতে দেড় শতাধিক প্রতিবেশী পরিবারকে খাদ্য সহায়তা দিলেন সিলেট শহরতলীর খাদিমনগর ইউনিয়নের চাতলীবন্দ গ্রামবাসী। সমাজের বিভিন্ন স্তরের বিত্তবানদের সহায়তা নিয়ে চাল,ডালসহ ঈদের প্রয়োজনীয় খাদ্য সামগ্রী সংগ্রহে নামেন গ্রামের মুরব্বিয়ানদের নেতৃত্বে একদল যুবক। এতে ব্যাপক সাড়া মিলে। সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেন জনপ্রতিনিধি থেকে নিয়ে বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষ।

মঙ্গলবার ( ১৯ মে) রাতে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে দেড় শতাধিক পরিবারের সদস্যদের হাতে তুলে দেয়া হয় খাদ্যসামগ্রী।

প্রায় পক্ষকালব্যাপী ব্যাপী খাদ্যসামগ্রী প্রদানের লক্ষ্যে পরিচালিত অর্থ সংগ্রহ কার্যক্রমে মুরব্বিয়ানদের নেতৃত্বে
স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণ করেন গ্রামের যুব সমাজ। অর্থ সংগ্রহ কার্যক্রমে সাড়া দিয়ে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেন সমাজের নেতৃস্থানীয় জনপ্রতিনিধি, রাজনীতিবিদ, ব্যবসায়ী, সমাজসেবী ও প্রবাসী কমিউনিটি নেতৃবৃন্দ।

চাতলীবন্দ গ্রামবাসী কর্তৃক খাদ্যসামগ্রী বিতরণ কার্যক্রমে অর্থসহাতাকারী ব্যক্তিবর্গের মধ্যে রয়েছেন
সিলেট সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী, খন্দকার মালিক ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়ারম্যান খন্দকার আব্দুল মুক্তাদির, সিলেট সদর উপজেলার মোগলগাঁও ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান শাহ জামাল নুরুল হুদা, খাদিমপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান মাজহারুল ইসলাম ডালিম, খাদিমনগর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ দিলোয়ার হোসেন, মেসার্স শফাত উল্লাহ ফিলিং স্টেশনের স্বত্বাধিকারী হাজী মোঃ হেলাল উদ্দিন, চাতল গ্রামের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মোঃ মোখলেছুর রহমান, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ, ফিজা এন্ড কোং এর ম্যানেজার মোঃ শাহাবুদ্দিন, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মোঃ মুহিবুর রহমান, বিশিষ্ট সমাজসেবী আফিল উদ্দিন,
যুক্তরাজ্য প্রবাসী সুয়েব আহমদ, মইয়ারচর গ্রামের বিশিষ্ট সমাজসেবী আরমান মিয়া, বিশিষ্ট সমাজসেবী দুদু মিয়া, পাঠানটুলা এলাকার তরুণ সমাজসেবী আফসর খান, সমাজসেবী ওয়ারিছ মিয়া, এ এসআই বুরহান উদ্দিন তালুকদার, ফ্রান্স প্রবাসী আলী আসকর, ওমান প্রবাসী সেলিম আহমদ সহ বিশিষ্ট দানশীল ব্যক্তি বর্গ উপহার সামগ্রী প্রদানে আর্থিক সহযোগিতা করেন।

এদিকে চাতলীবন্দ গ্রামের মুরব্বিয়ানদের পক্ষ থেকে দাতা ব্যাক্তি বর্গের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। তারা বলেন, আমাদের অনেকের বিত্ত আছে চিত্ত নেই, আবার চিত্ত আছে বিত্ত নেই। কিন্তু আমরা বিশ্বাস করি আমাদের অনেকের চিত্ত আছে বলেই ঈদ আনন্দ ভাগাভাগি করে নিতে এই করোনা দুর্যোগে প্রতিবেশীদের পাশে দাঁড়িয়েছেন। চাতলীবন্দ গ্রামবাসী এইসব দানশীল ব্যক্তিবর্গের কাছে চির কৃতজ্ঞ। খাদ্যসামগ্রী বিতরণকালে গ্রামের বিভিন্ন স্তরের নেতৃস্থানীয় ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, প্রত্যেককে প্রায় দেড় হাজার টাকা মুল্যমানের খাদ্যসামগ্রী ( চাল, ডাল, পিঁয়াজ, সোয়াবিন, ময়দা, চিনি, লাচ্ছি, নুডুলস, শাবান, নারিকেল) প্রদান করা হয়। এছাড়া আরো অর্ধশতাধিক মহিলাকে শাড়ি প্রদান করা হয়।

পরবর্তী খবর পড়ুন : মাঝ আকাশ থেকে ফিরল বিমান

আরও পড়ুন