ক্লিন সিলেট গড়তে সম্মিলিত প্রচেষ্টা অপরিহার্য -বিভাগীয় কমিশনার

প্রকাশিত : ২১ জুন, ২০১৯     আপডেট : ১ বছর আগে
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সিলেটের বিভাগীয় কমিশনার মোহাম্মদ মেজবাহ উদ্দীন চৌধুরী বলেছেন, বায়ু দুষণ ও ক্লিন সিলেট গড়তে সম্মিলিত প্রচেষ্টা অপরিহার্য। ময়লা আবর্জনা যেখানে সেখানে না ফেলে নির্দিষ্ট ডাস্টবিন ব্যবহার করতে হবে। বাসা বাড়ি প্রতিষ্ঠানসহ রাস্তার ধানে গাছ লাগাতে হবে। সন্তানদের পরিবেশ বান্ধব মানুষ হিসেবে গড়ে তুলতে হবে। বায়ু দুষণ,পরিবেশ দুষণ,পানি দূষণ এখন সবার জন্য মহামারীতে পরিণত হয়েছে। পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষা না হওয়ার ফলে জলবায়ূ পরিবর্তন হচ্ছে। ফলে বাড়ছে প্রাকৃতিক দুর্যোগ। এ দেশ আমার, এ শহর আমার মনে করে পরিবেশ দুষণ রোধে জনসচেতনতা বাড়াতে হবে।
সভ্যতার বিকাশের পাশাপাশি পরিবেশ রক্ষায়ও নজর দেওয়ার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন,একজন সচেতন নাগরিক হিসেবে প্রত্যেককে কর্মস্থলে ও বাসস্থানে গাছ লাগাতে হবে। সন্তানদেরও এই পরিবেশ বান্ধব কাজ শেখাতে হবেও প্রেরণা যোগাতে হবে।
তিনি বলেন,সভ্যতার ক্রমবিকাশ অব্যাহত রাখতে হবে, তবে পরিবেশের দিকে লক্ষ্য রেখেই এটি করতে হবে। পরিবেশ দূষণে সবাইকে সচেতন হওয়ার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, আমরা নিজেরা একদিন পৃথিবী ছেড়ে চলে যাবো। কিন্তু আমাদের বংশধররা যেন সুন্দরভাবে বাঁচতে পারে,টিকে থাকতে পারে,সেজন্য শতবর্ষব্যাপী ডেল্টা প্ল্যান নিয়ে কাজ করছে বর্তমান সরকার। ইট ভাটা,গাড়ীর কালো ধোয়ায় মারাত্মক বায়ু দুষণ হয়। যা জনস্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর। বিশ্বের বায়ু দুষণ দেশগুলির মধ্যে বাংলাদেশ অন্যতম। বায়ু দুষণের প্রধান প্রধান উৎস গুলো চিহ্নিত করে তা বন্ধ করার ব্যবস্থা নিতে এবং বাস যোগ্য পৃথিবী গড়ে তুলতে সবাইকে একযোগে করার জন্য তিনি সকলের প্রতি আহ্বান জানান।

তিনি গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে সিলেট জেলা পরিষদ মিলনায়তনে বিশ্ব পরিবেশ দিবস উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভা ও পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন।

সিলেটের জেলা প্রশাসক এম কাজী এমদাদুল ইসলামের সভাপতিত্বে ও জেলা কালচারাল অফিসার অসিত বরণ দাশ গুপ্তের সঞ্চালনায় ‘আসুন বায়ু দূষণ রোদ করি’ প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে পরিবেশ অধিদপ্তর সিলেট বিভাগীয় কার্যালয়ের উদ্যোগে আয়োজিত অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন-সিলেট রেঞ্জের ডি আই জি অব পুলিশ মোঃ কামরুল আহসান বিপিএম (বার),সুনামগঞ্জের জেলা প্রশাসক আব্দুল আহাদ,সিলেট জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের স্থানীয় সরকার বিভাগের পরিচালক মীর মোহাম্মদ মাহবুবুর রহমান,সিলেট কৃষি বিশ্ব বিদ্যালয়ের কৃষি প্রকৌশল ও কারিগরি অনুষদ এর ডিন অধ্যাপক ড.সানজিদা পারভীন রিতু, কলামিস্ট সাংবাদিক আফতাব চৌধুরী। শুরুতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন-পরিবেশ অধিদপ্তর সিলেট এর পরিচালক ইসরাত জাহান পান্না।

অনুষ্ঠানে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন সিলেট কৃষি বিশ্ব বিদ্যালয়ের এগ্রোফরেস্ট্রি ও এনভায়রনমেন্টাল সায়েন্স বিভাগের অধ্যাপক ড.মোঃ শারফ উদ্দীন।
অনুষ্ঠানে পুরস্কার প্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন-মৌলভীবাজার ভাতগাঁও তাহেরুন্নেছা উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী মমিুনুর রশীদ।
অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সিলেট পরিবেশ অধিদপ্তরের কেমিষ্ট সানওয়ার হোসেন,সহকারী পরিচালক পারভেজ আহমদ,পরিবেশ আইনবিদ সমিতি বেলার সিলেট বিভাগীয় সমন্বয়কারী এডভোকেট শাহ সাহেদা আক্তার,সিলেট পরিবেশ রক্ষা আন্দোলনের সাধারণ সম্পাদক ও দৈনিক সিলেটের ডাকের সিনিয়র রিপোর্টার হাজী এম আহমদ আলী,পরিবেশ ও মানবাধিকার সংগঠক সাংবাদিক জিল্লুর রহমান জিলু,মির্জা অয়েছ,জলিলুর রহমান প্রমুখ।
শুরুতে পবিত্র কোরআন তেলাওয়াত করেন বিভাগীয় কমিশনার কার্যালয় জামে মসজিদের ইমাম মাওলানা আলমগীর হোসেন।

অনুষ্ঠানে সেভরন বাংলাদেশ,সরকারী শিশু পরিবারসহ সিলেট বিভাগের বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের অংশ গ্রহনে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামন থেকে সকাল ৯টায় একটি বর্ণাঢ্য র‌্যালি বের হয়ে জেলা পরিষদে এসে অনুষ্ঠানে যোগ দেয়।
উল্লেখ্য পবিত্র ঈদুল ফিতর থাকায় গত ৫জুন বিশ্ব পরিবেশ দিবস পালনের পরিবর্তে দেশ ব্যাপী গতকাল ২০ জুন বিশ্ব পরিবেশ দিবস পালিত হয়।


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আরও পড়ুন

সংবাদপত্র হকার্সদের পাশে দাঁড়ালেন দানবীর ড.রাগীব আলী

         করোনা ভাইরাসের কারণে কর্মহীন হয়ে...

প্রতীকের আত্মহত্যার ঘটনা তদন্তে ৩ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠন

         সিলেট এক্সপ্রেস ডেস্ক: শাহজালাল বিজ্ঞান...

‘সিলেট ওয়েলফেয়ার ট্রাস্ট পিওলতেল্ল মিলান ইতালি’র আত্মপ্রকাশ

         সিলেট এক্সপ্রেস ডেস্ক: আত্মমানবতার সেবায়...