কাউন্সিলররা কে কত ভোট পেলেন

Alternative Text
,
প্রকাশিত : ৩১ জুলাই, ২০১৮     আপডেট : ৩ বছর আগে
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সিলেট সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে সাধারণ কাউন্সিলর পদে ২৭টি ওয়ার্ডের মধ্যে ২৬টি ওয়ার্ডে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। এর মধ্যে ২৪টি ওয়ার্ডের নির্বাচিত কাউন্সিলরদের বেসরকারি ফলাফল পাওয়া গেছে। এছাড়া ২৪ নম্বর এবং ২৭ নম্বর ওয়ার্ডে একটি করে মোট ২টি কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ স্থগিত থাকায় কোনো ফলাফল পাওয়া যায়নি। তাছাড়া ২০ নম্বর ওয়ার্ডে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বীতায় নির্বাচিত হয়েছেন আজাদুর রহমান আজাদ। ২৪ টি ওয়ার্ডে কাউন্সিলর হিসেবে পুরাতন ১৮ জন নির্বাচিত হয়েছেন। নতুন হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন ৬জন। এক নারীসহ ১২৭ জন প্রার্থী সাধারণ কাউন্সিলর পদে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করেন।
নির্বাচন কমিশনের তথ্য অনুয়ায়ী বেসরকারি ফলাফল:
১ নম্বর ওয়ার্ড ॥ সৈয়দ তৌফিকুল হাদী (ঝুড়ি মার্কা) ১৫৯৩ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। প্রতিদ্বন্দ্বী নিয়াজ মোহাম্মদ আজিজুল করিম (করাত) পেয়েছেন ৯৯২ ভোট, সৈয়দ আনোয়ারুস সাদাত (টিফিন ক্যারিয়ার) ৮৮০, মুফতি কমর উদ্দিন (কাটা চামচ) ৩২০, এজহারুল হক চৌধুরী (ঘুড়ি) ২৮৯, আনোয়ার হোসেন মানিক (মিষ্টি কুমড়া) ২৫৫, মুবিন আহমদ (ট্রাক্টর) ২০৯, ইকবাল আহমদ রনি (এয়ারকন্ডিশন) ৮১ ও সলমান আহমদ চৌধুরী (রেডিও) ৭৭ ভোট পেয়েছেন।
২ নম্বর ওয়ার্ড ॥ বিক্রম কর স¤্রাট (লাটিম) ২০৮৭ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার প্রতিদ্বন্দ্বী রাজিক মিয়া (ঘুড়ি) ১৪৯৩ ভোট পেয়েছেন।
৩ নম্বর ওয়ার্ড ॥ আবুল কালাম আজাদ লায়েক (ঠেলা গাড়ি) ৩১৭৯ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। প্রতিদ্বন্দ্বী এস এম আবজাদ হোসেন (ব্যাডমিন্টন ব্যাট) ১৪৬৯, আব্দুল খালিক (টিফিন ক্যারিয়ার) ৬২৪, রাজিব কুমার দে (লাটিম) ৩৬৭, সালেহ আহমদ (ট্রাক্টর) ২৩১ ও শামীম আহমদ চৌধুরী (ঘুড়ি) ৩২ ভোট পেয়েছেন।
৪ নম্বর ওয়ার্ড ॥ রেজাউল হাসান কয়েস লোদী (লাটিম) ২৮২৮ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন।
প্রতিদ্বন্দ্বী সোহাদ রব চৌধুরী (ঠেলাগাড়ি) ১১৪৪, শেখ তোফায়েল আহমদ সেফুল (টিফিন ক্যারিয়ার) ৩৮৫ ও শাকিল আহমদ (ঘুড়ি) ৪৯ ভোট পান।
৫ নম্বর ওয়ার্ড॥ রেজওয়ান আহমদ (টিফিন ক্যারিয়ার) ৩৩৮৬ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন।
প্রতিদ্বন্দ্বী আমিনুর রহমান পাপ্পু (ঠেলাগাড়ি) ৯০৫, রিমাদ আহমদ রুবেল (রেডিও) ৮৮৭, কাজী নজমুল আহমদ (লাটিম) ৪০৫ ও নিলুফার সুলতানা চৌধুরী লিপি (ট্রাক্টর) ৫১ ভোট পেয়েছেন।
৬ নম্বর ওয়ার্ড ॥ ফরহাদ চৌধুরী শামীম (ঘুড়ি) ৪০০৩ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। প্রতিদ্বন্দ্বী ইমদাদ হোসেন চৌধুরী (রেডিও) ৩৪৪৯ ভোট, ইয়ার মো. এনামুল হক (লাটিম) ১৬৭ ও শাহীন মিয়া (ঠেলাগাড়ি) ১৪৯ ভোট পেয়েছেন।
৭ নম্বর ওয়ার্ড ॥ আফতাব হোসেন খান (ঘুড়ি) ৬৩০০ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী সায়ীদ আব্দুল্লাহ (লাটিম) পান ৩৭৮৬ ভোট।
৮ নম্বর ওয়ার্ড ॥ ইলিয়াছুর রহমান (ঝুড়ি) নির্বাচিত হয়েছেন।
৯ নম্বর ওয়ার্ড ॥ মোখলেছুর রহমান কামরান (ঠেলাগাড়ি) নির্বাচিত হয়েছেন।
১০ নম্বর ওয়ার্ড ॥ তারেক উদ্দিন (ঠেলাগাড়ি)২২৪৯ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আব্দুল হাকিম পেয়েছেন (ব্যাডমিন্টন র‌্যাকেট) ২১৫৫ ভোট।
১১ নং ওয়ার্ড ॥ রকিবুল ইসলাম ঝলক (ঠেলাগাড়ি)৪১৮০ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। প্রতিদ্বন্দ্বী আব্দুর রকিব বাবলু (ঘুড়ি) পেয়েছেন ৩৫১৫ ভোট।
১২ নম্বর ওয়ার্ড ॥ সিকন্দর আলী (ব্যাডমিন্টন র‌্যাকেট) ৩২২৬ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। প্রতিদ্বন্দ্বী আব্দুল কাদির (লাটিম) পেয়েছেন ১৭৯১ ভোট ।
১৩ নং ওয়ার্ড ॥ শান্তনু দত্ত সনতু (ঘুড়ি) ২৭১২ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। প্রতিদ্বন্দ্বী বিশ্বজিৎ দাস (ঝুড়ি) ১৫৪৯ ভোট, গুলজার আহমদ (ব্যাডমিন্টন র‌্যাকেট)১০৬৫ ভোট, মো. এবাদ খাঁন দিনার (টিফিন ক্যারিয়ার) ৭১৫ ও সুমন আহমদ (ঠেলাগাড়ি) ৫০৪ ভোট পেয়েছেন।
১৪ নম্বর ওয়ার্ড ॥ নজরুল ইসলাম মুনিম (ঘুড়ি) ৩৬৮৬ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। প্রতিদ্বন্দ্বী মোস্তাফিজুর রহমান (টিফিন ক্যারিয়ার) ১০৩৪, হাবিবুর রহমান মজলাই (ঠেলাগাড়ি) ৯১২, সাঈদী আহমদ (লাটিম) ১৪৪, রণজিৎ চৌধুরী (ব্যাডমিন্টন র‌্যাকেট)১০৯ ভোট পান।
১৫ নম্বর ওয়ার্ড ॥ ছয়ফুল আমিন বাকের (টিফিন ক্যারিয়ার) নির্বাচিত হয়েছেন।
১৬ নম্বর ওয়ার্ড ॥ আব্দুল মুহিত জাবেদ (টিফিন ক্যারিয়ার) ২৯১৮ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। প্রতিদ্বন্দ্বী সাব্বির আহমদ (মিষ্টি কুমড়া) ২৪২৬ ভোট পান।
১৭ নম্বর ওয়ার্ড ॥ রাশেদ আহমদ (ট্রাক্টর) ৪২৮৫ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী দেলোয়ার হোসেন সজীব(ঘুড়ি) ৩৪৬১ ভোট পান।
১৮ নম্বর ওয়ার্ড ॥ এবিএম জিল্লুর রহমান উজ্জ্বল (মিষ্টি কুমড়া) ২১৯৬ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। প্রতিদ্বন্দ্বী সালমান চৌধুরী (টিফিন ক্যারিয়ার) ১৩২০ ভোট পান।
১৯ নং ওয়ার্ড ॥ এস এম শওকত আমিন তৌহিদ (ঠেলাগাড়ি) ৩১২০ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। প্রতিদ্বন্দ্বী দিনার খান হাসু (ঘুড়ি) ২৩৪১ ভোট পেয়েছেন।
২০ নম্বর ওয়ার্ড ॥ এই ওয়ার্ডে বর্তমান কাউন্সিলর আজাদুর রহমান আজাদ বিনা প্রতিদ্বন্দ্বীতায় নির্বাচিত হয়েছেন।
২১ নম্বর ওয়ার্ড ॥ আব্দুর রকিব তুহিন (লটিম) ৪২২১ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। প্রতিদ্বন্দ্বী সাহেদুর রহমান (ঘুড়ি) পেয়েছেন ২৩০৯ ভোট।
২২ নম্বর ওয়ার্ড ॥ ছালেহ আহমদ সেলিম (টিফিন ক্যারিয়ার) নির্বাচিত হয়েছেন।
২৩ নম্বর ওয়ার্ড ॥ মোস্তাক আহমদ (ঠেলাগাড়ি) ২০৭৭ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। প্রতিদ্বন্দ্বী ফারুক আহমদ (লাটিম) ২০৫৮ ভোট পান ।
২৫ নম্বর ওয়ার্ড ॥ তাকবির ইসলাম পিন্টু (ঘুড়ি) ৩৩৮০ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। প্রতিদ্বন্দ্বী আশিক আহমদ ২৫৮১ ভোট পেয়েছেন।
২৬ নম্বর ওয়ার্ড ॥ মোহাম্মদ তৌফিক বক্স লিপন (ব্যাডমিন্টন র‌্যাকেট) ৬৬৪০ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। প্রতিদ্বন্দ্বী সেলিম আহমদ রনি (ঘুড়ি) ১৭৮৯ ভোট পান।


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আরও পড়ুন

সিলেটে যথাযোগ্য মর্যাদা পালিত হচ্ছে মহান মে দিবস

        তাসলিমা খানম বীথি: সিলেটে যথাযোগ্য...

এপার বাংলা, ওপার বাংলা নৃত্য উৎসবের ৩য় দিন অতিবাহিত

        সিলেট এক্সপ্রেস ডেস্ক: “বিশ্ববীণা বেজে...

নবীগঞ্জে সড়ক দূর্ঘটনা চালক আহত

        নবীগঞ্জে সড়ক দূর্ঘটনা চালক আহত।...