কমিউনিটি ভিত্তিক সঞ্চয় ও ঋণ কার্যক্রমে অনিয়মে সিলেটে মানববন্ধন

Alternative Text
,
প্রকাশিত : ২৫ আগস্ট, ২০২০     আপডেট : ১ বছর আগে
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

কমিউনিটি ভিত্তিক সঞ্চয় ও ঋণ কার্যক্রমে দুর্নীতি ও অনিয়ম করায় ফাতেমা বেগম ফাতু, রেবা বেগম ও লাভলী বেগমের বিরুদ্ধে সিলেটের জেলা প্রশাসক ও সিলেট সিটি কর্পোরেশনের মেয়র বরাবরে পৃথক পৃথক স্মারকলিপি প্রদান ও মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করা হয়। আজ ২৫শে আগষ্ট রোজ মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১১টা সময় সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের সামনে এই মানববন্ধন পালন করেন ভুক্তভোগিসহ এলাকাবাসী। এর আগেই মিনা বেগম, রিপা বেগম, বিথী বেগম, বিন্দা রানী, নুরেছাবি, সাবিনা বেগম, সাগলা বেগম, নুরজাহান বেগম সহ ৯জন স্বাক্ষরিত এই স্মারকলিপি দাখিল করেন তারা।

মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন, বাংলাদেশ মানবাধিকার সংস্থা হিউম্যান রাইটস ওয়াচ ট্রাষ্ট অব বাংলাদেশ কেন্দ্রীয় কমিটির চেয়ারম্যান মোহাম্মদ দেলোয়ার হোসেন খান, সংস্থার সদস্য দুলেনা বেগম, শাইনা বেগম, সাজনা বেগম, আফিয়া বেগম, বেবি বেগম, খেলন বেগম, মোছা: নীলা বেগম, সিমা আক্তার, রাবেয়া বেগম, মনোয়ারা বেগম, গুলজান বেগম, রুবিনা বেগম, সুরুতুন বেগম, খাতুন বেগম,আনোয়ারা বেগম, হাওয়া বেগম, সায়েরা বেগম, মুনতারা বেগম, গুস্প রাণি দাস, দীপালি রাণী দাস, ফারজানা আক্তার, হালিমা আক্তার, কুলছুমা বেগম, মোছা:সুমি আক্তার,শেফা বেগম, সুলেখা বেগম ও দিলারা বেগম সহ অন্যান্যরা প্রমুখ।

মানববন্ধনে বক্তারা করেন, কমিউনিটি ভিত্তিক সঞ্চয় ও ঋণ কার্যক্রম ২০১২ সাল থেকে গরীব, মেহনতি সদস্যরা এই সংস্থায় ৪০ টাকা হারে প্রতি মাসে সঞ্চয় প্রদান করে আসছেন। এই সংস্থার সদস্যদের মাঝে বিতরণের জন্য বছরে ২ থেকে ৩ বার শিক্ষাভাতা, গর্ভ ভাতা, প্রশিক্ষণ ভাতা, পুষ্টি ভাতা সহ অন্যান্য আনুসাঙ্গিত ভাতা প্রদান করা হয়ে থাকে। কিন্তু এই সংস্থার সদস্যরা কখনো এসব ভাতা পাননি। ফাতেমা বেগম ফাতু ও তার সহযোগীরা কমিউনিটি ভিত্তিক সঞ্চয় ও ঋণ কার্যক্রমে সদস্যদের নামে আসা এসব টাকা দীর্ঘ থেকে আত্মসাৎ করে যাচ্ছে। স্বনজপ্রীতির মাধ্যমে এসব টাকা প্রভাবশলীদের মাঝে বিতরণ করে যাচ্ছেন তারা। সংস্থার অনেক সদস্য কম শিক্ষিত হওয়ায় পুরাতন বইয়ের অনেক হিসাব অভিযুক্তরা নতুন বইয়ে লিপিবদ্ধ করে না। অসহায় ও গরীবদের জন্য আসা সহায়তা অনুদান ডিপ টিউভওয়েল, ডাস্টবিন, স্যানেটারি লেপটিনের রিং প্রভাবশালীদের মাঝে নগদে বিক্রি করে দেওয়া হয়। তারা প্রভাবশালী রাজনৈতিক ছত্রছায়ায় থাকার ফলে ও প্রাণের ভয়ে অসহায় মানুষ তাদের বিরুদ্ধে কথা বলতে পারে না। কেউ তাদের অন্যায়ের প্রতিবাদ করলে তাকে ভয়ভীতি দেখানো হয়।

স্মারকলিপিতে উল্লেখ করেন, সংশ্লিষ্ট উর্ধ্বতন মহলের সহযোগিতায় তারা এ ধরনের দুর্নীতিমূলক কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে। তাদের এই দুর্নীতির বিরুদ্ধে সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে মাববন্ধনও করা হয়। ফাতেমা বেগম ফাতু, রেবা বেগম, শিউলী বেগম, শাহানা বেগম ও সেলিনা বেগমসহ তার সহযোগীরা এসব দুর্নীতির মাধ্যমে অনেক টাকা পয়সা আত্মসাৎ করে গাড়িবাড়ির মালিক হয়ে আঙ্গুল ফুলে কলা গাছ বনেছেন। সুষ্ঠু তদন্ত করলে তাদের এই দুর্নীতির আসল রহস্য বেরিয়ে আসবে এতে করে সাধারণ মানুষ ও শিক্ষা থেকে বঞ্চিত এসব শিক্ষার্থীরা তাদের অধিকার ফিরে পেতে পারে। তাই তাদের বিরুদ্ধে সুষ্ঠু তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে আমরা প্রশাসনের উর্ধ্বতন মহলের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি। বিজ্ঞপ্তি


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আরও পড়ুন