কঠোর’ বিধিনিষেধের পর সবকিছু খুলছে আজ

,
প্রকাশিত : ১১ আগস্ট, ২০২১     আপডেট : ৪ মাস আগে
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

দীর্ঘদিন ধরে ‘কঠোর’ বিধিনিষেধের পর আজ বুধবার থেকে শর্তসাপেক্ষে অফিস ও গণপরিবহনসহ সবকিছু খুলছে। এর আওতায় মঙ্গলবার দিবাগত রাত ১২টায় সিলেট থেকে দূরপাল্লার বাস চলাচল শুরু হয়েছে। শপিং মলসহ অন্যান্য ব্যবসায়ীরা স্বাস্থ্যবিধি মেনে আজ থেকে দোকানপাট খুলবেন বলে জানিয়েছেন।

সিলেট জেলা সড়ক পরিবহন মালিক শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি ময়নুল ইসলাম জানান, গণপরিবহন চালু নিয়ে মঙ্গলবার বিকাল ৫টা-৬টা পর্যন্ত তারা সিলেটের বিভাগীয় কমিশনার, ডিআইজি, জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপারের সাথে ভার্চুয়াল বৈঠক করেছেন। এ বৈঠকে প্রশাসনের পক্ষ থেকে তাদেরকে রাস্তায় অর্ধেক গাড়ি চালানোর পাশাপাশি স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার ক্ষেত্রে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। তিনি বলেন, আজ বুধবার তাদের সংগঠনের পক্ষ থেকে মাস্ক বিতরণ করা হবে।

সিলেট মহানগর ব্যবসায়ী ঐক্যকল্যাণ পরিষদের সভাপতি আব্দুর রহমান রিপন জানান, আজ বুধবার স্বাস্থ্যবিধি মেনে নগরীর দোকান-পাট খুলবে। প্রত্যেকটি মার্কেটের সম্মুখে হ্যান্ড স্যানিটাইজারের ব্যবস্থা রাখা এবং মাস্ক ছাড়া কাউকে মার্কেটে প্রবেশ না করাতে ব্যবসায়ীদের বলা হয়েছে। এ ব্যাপারে তাদের পক্ষ থেকে প্রচারণাও চালানো হবে। অপর এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, গত প্রায় দুই মাস ধরে দোকান-পাট বন্ধ থাকায় ব্যবসায়ীরা অপূরণীয় ক্ষতির সম্মুখীন। তিনি দুই মাসের দোকানভাড়া মওকুফ করতে দোকান মালিকদের প্রতি আহ্বান জানান।
এদিকে, সবকিছু খোলার বিষয়ে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের আদেশে বলা হয়েছিল, গত ৩ আগস্ট অনুষ্ঠিত করোনা ভাইরাস সংক্রমণ পরিস্থিতি পর্যালোচনা সংক্রান্ত আন্ত:মন্ত্রণালয় সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী দেশের আর্থ সামাজিক অবস্থা, অর্থনৈতিক কর্মকান্ড সচল রাখা এবং সামগ্রিক পরিস্থিতি বিবেচনায় এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।
সব সরকারি, আধা সরকারি, স্বায়ত্তশাসিত এবং বেসরকারি অফিস, ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান স্বাস্থ্যবিধি মেনে খোলা থাকবে।
সড়ক, রেল ও নৌপথে আসনসংখ্যার সমপরিমাণ যাত্রী নিয়ে গণপরিবহন বা যানবাহন চলাচল করতে পারবে। সড়ক পথে গণপরিবহন চলাচলের ক্ষেত্রে স্থানীয় প্রশাসন (সিটি করপোরেশন এলাকায় বিভাগীয় কমিশনার ও জেলা পর্যায়ে জেলা প্রশাসক) নিজ নিজ অধিক্ষেত্রে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী, সংশ্লিষ্ট দপ্তর বা সংস্থা, মালিক ও শ্রমিক সংগঠনের সঙ্গে আলোচনা করে প্রতিদিন মোট পরিবহনসংখ্যার অর্ধেক চালু করতে পারবে।
এছাড়া শপিংমল, মার্কেট ও দোকানপাট সকাল ১০টা থেকে রাত আটটা পর্যন্ত স্বাস্থ্যবিধি মেনে খোলা রাখা যাবে। সব শিল্প-কলকারখানা চালু থাকবে। আর খাবারের দোকান, হোটেল-রেস্তোরাঁয় অর্ধেক আসন খালি রেখে সকাল আটটা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত খোলা যাবে। আদালতের বিষয়ে সুপ্রিম কোর্ট প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দেবে।
সব ক্ষেত্রে মাস্ক পরিধান নিশ্চিত করতে হবে এবং স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের স্বাস্থ্যবিধি যথাযথভাবে করতে হবে। গণপরিবহন, বিভিন্ন দপ্তর, মার্কেট ও বাজারসহ যেকোনো প্রতিষ্ঠান স্বাস্থ্যবিধি প্রতিপালনে অবহেলা করলে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
করোনা ভাইরাস সংক্রমণের নিয়ন্ত্রণে এ বছরের ৫ এপ্রিল থেকে ধাপে ধাপে বিধিনিষেধ চলছে। ঈদের পর ২৩ জুলাই থেকে কঠোর বিধিনিষেধ শুরু হয়। যা প্রথমে ৫ আগস্ট পর্যন্ত ছিল। পরে তা ১০ আগস্ট পর্যন্ত বাড়ানো হয়।
বিআরটিএ’র বিজ্ঞপ্তি
গতকাল মঙ্গলবার বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআরটিএ) থেকে গণপরিবহন চলাচলের বিষয়ে একটি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছে।
বিজ্ঞপ্তিতে যেসব নির্দেশনা দেয়া হয়েছে সেগুলো হলো-
১. আসন সংখ্যার অতিরিক্ত কোনো যাত্রী পরিবহন করা যাবে না এবং দাঁড়িয়ে কোনো যাত্রী বহন করা যাবে না। সড়ক পথে গণপরিবহন চলাচলের ক্ষেত্রে স্থানীয় প্রশাসন (সিটি করপোরেশন এলাকায় বিভাগীয় কমিশনার ও জেলা পর্যায়ে জেলা প্রশাসক) নিজ নিজ অধিক্ষেত্রের আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী, সংশ্লিষ্ট দপ্তর/ সংস্থা, মালিক ও শ্রমিক সংগঠনের সঙ্গে আলোচনা করে প্রতিদিন মোট পরিবহন সংখ্যার অর্ধেক চালু করতে পারবে।
২. পূর্বের ভাড়ায় (৬০ শতাংশ বর্ধিত ভাড়া প্রযোজ্য হবে না) গণপরিবহন চলবে। পূর্বের ভাড়ার অতিরিক্ত ভাড়া কোনোভাবেই আদায় করা যাবে না।
৩. গণপরিবহনের যাত্রী, চালক, সুপারভাইজার/কন্ডাক্টর, হেলপার-কাম ক্লিনার এবং টিকিট বিক্রয় কেন্দ্রের দায়িত্বে নিয়োজিত ব্যক্তিদের মাস্ক পরিধান নিশ্চিত করতে হবে এবং তাদের জন্য প্রয়োজনীয় হ্যান্ড স্যানিটাইজারের ব্যবস্থা রাখতে হবে।
৪. যাত্রার শুরু ও শেষে যানবাহন পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নসহ জীবাণুনাশক দিয়ে জীবাণুমুক্ত করতে হবে। এছাড়া যাত্রীদের হাতব্যাগ, মালপত্র জীবাণুনাশক ছিটিয়ে জীবাণুমুক্ত করার ব্যবস্থা যানবাহনের মালিকদের করতে হবে।
৫. গণপরিবহনে স্বাস্থ্যবিধি সংক্রান্ত অন্যান্য প্রয়োজনীয় বিষয়াদি মেনে চলতে হবে। অন্যথায় সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।
প্রজ্ঞাপন জারির পর থেকে সড়কে নামতে প্রস্তুতি নিতে শুরু করেছে পরিবহন কোম্পানিগুলো। বিক্রি হচ্ছে অগ্রিম টিকিটও।#


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আরও পড়ুন

কাউন্সিলর আজাদ করোনা থেকে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন

        করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত সিলেট সিটি...

সিলেটের ভবিষ্যৎ উন্নয়নে কাজ করবে কানাডা

        বাংলাদেশ তথা সিলেটের ভবিষ্যৎ উন্নয়নে...

যুক্তরাস্ট্রে বাংলাদেশীদের মৃত্যু ২৫১ ছাড়িয়ে গেছে

        এমদাদ চৌধুরী দীপু(নিউইয়র্ক) দুই সপ্তাহে...