একাধিক বিয়ে করা কি হারাম?

,
প্রকাশিত : ০৮ এপ্রিল, ২০২১     আপডেট : ২ সপ্তাহ আগে
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আ বু সা ঈ দ আ ন সা রী :
একাধিক বিয়ে নিয়ে নানা কথা রয়েছে সমাজে। তবে মনে রাখতে হবে ইসলাম হচ্ছে একমাত্র ধর্ম যেখানে বিয়েকে restricted করা হয়েছে। পবিত্র বাইবেলে আছে ইয়াহুদী এবং খৃষ্টানদের
ধর্ম প্রবক্তা কিং সলোমনের কিন্তু ৭০০ জন স্ত্রী ছিলেন। ভাগবত পুরাণে বলা হয়েছে শ্রীকৃষ্ণের ১৬০০ জন স্ত্রী ছিলেন।
পবিত্র কোরআনে বলা হয়েছে, فَانكِحُواْ مَا طَابَ لَكُم مِّنَ النِّسَاء مَثْنَى وَثُلاَثَ وَرُبَاعَ فَإِنْ خِفْتُمْ أَلاَّ تَعْدِلُواْ فَوَاحِدَةً তবে সেসব মেয়েদের মধ্যে থেকে যাদের ভাল লাগে তাদের বিয়ে করে নাও দুই, তিন, কিংবা চারটি পর্যন্ত। আর যদি এরূপ আশঙ্কা কর যে, তাদের মধ্যে ন্যায় সঙ্গত আচরণ (আদালাহ) বজায় রাখতে পারবে না, তবে, একটিই বিয়ে করো। আয়াত-৩, সুরাহ আননিসা।
আল্লাহ কিন্তু ২ থেকে শুরু করেছেন। প্রথমে বলেছেন দুটো বিয়ে করার জন্য তারপর ৩ ও ৪ এর কথা এসেছে। তবে আপনি যদি আদালাহ বা justice করতে না পারেন তাহলে একজনকেই করতে হবে। প্রশ্ন আসতে পারে বিয়ে না করে বুঝবো কেমনে আমি justice করতে পারবো কি না? সেটা একটা বড় প্রশ্ন।
আমাদের নাবী মুহাম্মাদ (সাঃ) এর কিন্তু একাধিক স্ত্রী ছিলেন আমরা জানি।কিন্তু আপনারা কি জানেন চার খালিফাহ সহ Prominent সাহাবাদের ও (রাঃ) একাধিক স্ত্রী ও দাসী ছিলেন।তারা justice করেছেন। এবং আল্লাহ চান যে আপনি সমাজে justice করেন। যেমন, মার্টিন লুথার কিং জুনিয়ার বলেছেন, ‘’Injustice anywhere is a threat to justice everywhere.’’
সাহাবাদের চাইতে আমাদের বর্তমান সমাজের প্রয়োজনকে ছোটো করে দেখা যাবে না। বরং তা অনেকাংশেই বেশি। সমাজ কিংবা রাষ্ট্রে নারীরা যদি পুরুষের চাইতে বেশি হয়ে যান তাহলে সমাধান কি? জাতিসংঘের তথ্য অনুযায়ী বর্তমানে বিশ্বের ১০টি দেশে নারীরা পুরুষদের তুলনায় বেশি। ধরুন, নেপালে বর্তমানে নারীদের সংখ্যা ১৫.৬ মিলিয়ন আর পুরুষের সংখ্যা হলো ১৩ মিলিয়ন। রাশিয়া এবং ইউক্রেনেও প্রায় একই অবস্থা। এক্ষেত্রে পুরুষদেরকে আল্লাহ যদি একের অধিক বিয়ে করার অধিকার না দিতেন, তাহলে দেশের বাকী নারীদের অবস্হান কোথায় হবে? সমাজবিজ্ঞানীদের মতে এসব নারীদেরকে বিয়ের মতো সামাজিক বন্ধনে না আনতে পারলে সমাজে নৈতিক স্খলনজনিত অপরাধ এবং অবক্ষয়ের সৃষ্টি হবে।
কোরআন কিন্তু universal, প্রতিটি যুগের, কালের এবং সময়ের জন্য। কোরআনের হুকুম বা একটি আয়াতকে অস্বীকার করাও কিন্তু কুফর। যুক্তি দিয়ে দ্বিতীয় বিয়েকে ignore করা যাবে না। মনে রাখতে হবে এ নিয়ে বিদ্রুপ করা কোরআনের সাথে contradictory.
আমার অনেক শিক্ষক এবং বন্ধু আছেন যাদের একাধিক স্ত্রী আছেন এবং ভালোই সংসার চলছে। আমার শশুরেরও দুজন স্ত্রী। একজন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গত বছর এই সময়ে ইন্তেকাল করেছেন। إنا لله و إنا إليه راجعون، الله يرحمها، رحمة واسعة আমিন। আরেকজন বেঁচে আছেন।الحمدلله উনি না থাকলে আমার শশুর আজ অনেক একা হয়ে যেতেন।বলা বাহুল্য দুজনেই আমাকে খুবই স্নেহ করেন।
আসলে সমস্যা হলো পুরুষরা অনেকেই, সবাই না, একাধিক বিয়ে করার পর প্রথম স্ত্রীকে আগের মতো ভালোবাসেন না। আর আমাদের স্ত্রীরাও এমন তারা তাদের স্বামীকে কারো সাথে শেয়ার করতে চান না। হারাম কাজ আজ সহজ হয়ে গেছে আর হালালটা কঠিন। সত্যিই দূর্ভাগ্য!
যেমন, আমাদের প্রধানমন্ত্রী জনাব বরিস সাহেব, যার স্ত্রী আছেন তারপরও ২/৩ জন গার্লফ্রেন্ডসদের সাথে সম্পর্ক করেছেন। একজনকে নিয়ে তিনি তার 10 Downing Street এ থাকছেন। সেই গার্লফ্রেন্ড তার মেয়ের সমান বয়েসী। অথচ এ বয়সের একজন মুসলমান ঐ বয়েসী মেয়েকে আইনসঙ্গত ভাবে বিয়ে করলে সমাজ সে পুরুষকে মন্দ বলবে। বড়ই আফসোস! الله المستعان
সাউথ আফ্রিকান #অমুসলমান প্রেসিডেন্ট জ্যাকব জুমা একবার তার তিনজন স্ত্রীকে নিয়ে আসলেন ইউকেতে। এ নিয়ে মিডিয়া সহ সর্বত্র কতো হাসাহাসি হলো! Friends হলে হয়তো তারা ততোটা হাসতেন না। তবে তিনি যদি মুসলমান হতেন তাহলে যে কি হতো? আপনারা ভালো বলতে পারবেন।
আমার মনে আছে, তখন আমি Ealing Law School এ আইন নিয়ে পড়ছি- Inner Temple এ এক খ্রিষ্টান পাদ্রীর সাথে আমার debate ছিলো। বিষয়: The Rights of Women in Islam and Christianity. ঐ পাদ্রী biogamy এবং polygamy এর বিরুদ্ধে অনেক কিছু বললেন। আমি শুধু বললাম, যদি একজনের স্ত্রী বন্ধ্যা থাকেন তাহলে তিনি কি করবেন? অথচ সেই লোক সন্তান চান। উত্তরে তিনি বললেন, divorce দিয়ে দেবেন এবং আরেকটি বিয়ে করবেন। আমি বললাম, দেখেন, ঐ বন্ধ্যা স্ত্রী তার স্বামীকে ভালোবাসেন, তিনি divorce চান না। তখন তিনি চুপ হয়ে গেলেন। আমি বললাম, এ ক্ষেত্রে তিনি স্ত্রীকে স্ত্রীর মর্যাদায় রেখে আরেকটি বিয়ে করতে পারেন। ইসলামে এই সমাধান আছে।
তারপর এক মুসলিম ছাত্র audience থেকে বলে উঠলেন, আমি আমার বাবার দ্বিতীয় স্ত্রীর সন্তান। আমার বড়ো মা’র সন্তান হয়নি বলে তিনি জোর করে আমার বাবাকে আরেকটি বিয়ে দেন আর সেজন্যই আমি এ দুনিয়াতে আসতে পেরেছি। আমাদের ইসলাম কতই না সুন্দর!
سبحان الله
তবে মনে রাখতে হবে প্রথম স্ত্রীর কোনো ধরনের সমস্যা না থাকলেও এবং কোনো কারণ ছাড়াই আপনি একাধিক বিয়ে করতে পারেন। কিন্তু যেটা দরকার তা হলো, justice এবং আপনি স্ত্রীদের মধ্যে কোনো discrimination কিংবা partiality করতে পারবেন না। কোরআন হাদীস এ ব্যাপারে স্পষ্ট!
আল্লাহ আমাদেরকে হারাম থেকে বেঁচে হালাল পথে চলার তাওফিক দান করুন।
আমিন।
আ বু সা ঈ দ আ ন সা রী
এপ্রিল ৭, ২০২১।। লন্ডন, ইংল্যান্ড।


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আরও পড়ুন

আরিফ দায়িত্ব নিচ্ছেন সোমবার

         সিলেট সিটি কর্পোরেশনের মেয়র হিসেবে...

মাধবপুরে বাস-পিকআপ ভ্যান মুখোমুখি সংর্ঘষে নিহত-১

5        5Sharesআবুল হোসেন সবুজ মাধবপুর হবিগঞ্জ...

লকডাউন বা কারফিউ কি খুব জরুরী?

82        82Sharesইকবাল মাহমুদ : টেস্ট বাড়ছে,...

শিক্ষামন্ত্রীর সাথে বেসরকারি শিক্ষক ফোরামের সৌজন্য সাক্ষাৎ

         সিলেট এক্সপ্রেস ডেস্ক : শিক্ষামন্ত্রী...