ঈদ ছন্দের পতন

প্রকাশিত : ১৯ মে, ২০২০     আপডেট : ১ সপ্তাহ আগে  
  

 আহবাব চৌধুরী খোকন

বর্ষ পরিত্রমায় আবারো এসেছে ফিরে পবিত্র ঈদুর ফিতর । সবাইকে ঈদের আগাম শুভেচ্ছা । ঈদ মোবারক । ঈদ আরবি শব্দ । অর্থ খুশী বা আনন্দ । ঈদ একাধারে উৎসব এবং ইবাদত । এক মাস সিয়াম সাধনা শেষে ঈদ মানুষকে পাপ পঙ্কিলতা থেকে মুক্ত হয়ে আল্লাহর অনুগ্রহ অর্জনের শিক্ষা দিয়ে থাকে। ঈদ এলে ধনী গরিব,উচু নিচু, সকল মানুষ মেতে উঠে উৎসবে। সকল বৈষম্য ও ভেদাভেদ ভুলে মানুষে মানুষে সৃষ্টি হয় সাম্য ও ভ্রাতৃত্ববোধ। ধনী গরিব নির্বিশেষে সকল মানুষ একটি দিনের জন্য হলেও ভুলে যায় হিংসা বিদ্বেষ । মহানবি (সঃ) মদিনায় হিজরত করার পূর্বে আরব জাতিরা ‘নাইরোজ’ ও ‘মেহেরজান’ নামে দুটি উৎসব পালন করত । এই দুটি উৎসব ছিল বেহায়াপনা ও অশ্লীলতায় নিমজ্জিত । মহানবি (সঃ) মদিনায় হিযরত করার পর অশ্লীলতায় আকণ্ঠ নিমজ্জিত এই উৎসব দুটির মূলোৎপাটন করে মুসলমানদের জন্য চালু করেন ঈদুল ফিতর ও ঈদুল আযহা নামে দুটি ধর্মীয় উৎসব। মূলত মুসলিম সম্প্রদায়ের মধ্যে তখন থেকেই শুরু হয় ঈদ উৎসব পালনের প্রচলন । মুসলমানেরা ঈদের দিনে জামাতে দুই রাকাত ঈদের নামাজ আদায় করেন। ঈদের নামাজ ঈদগাহ বা খোলা ময়দানে আদায় করা উত্তম । ঈদে অবস্থাসম্পন্ন ধনী লোকেরা নির্দিষ্ট হারে দরিদ্র মানুষের মাঝে ফিতরা বা জাকাত বিতরণ করেন যা আল্লাহর বিধান অনুযায়ী বাধ্যতা মূলক । ধনী গরিব নির্বিশেষে সবাই যাতে সমভাবে ঈদের আনন্দে অংশ নিতে পারেন সেই জন্য ইসলাম ধর্মে ফিতরা ও জাকাত প্রথা প্রবর্তন করা হয়েছে । এই আইন অমান্য কারীদের জন্য আল্লাহর পক্ষ থেকে কঠোর শাস্তির কথা বলা হয়েছে। ঈদুল ফিতির মুসলমানদের জন্য অনেক তাৎপর্যপূর্ণ । ঈদ অর্থ খুশি বা আনন্দ আর ফিতর হচ্ছে ফিতরা । সহজ পরিভাষায় ঈদুল ফিতর হচ্ছে দান খয়রাতের মাধ্যমে আনন্দ ভাগাভাগি করা। ইসলামের জাকাত ও ফিতরা ব্যবস্থা ধনী দরিদ্রের বৈসম্য দূর করেছে ।ঈদুল ফিতরের শিক্ষা হচ্ছে মানুষে মানুষে সাম্য ও ভ্রাতৃত্ববোধ জাগ্রত করা । পরস্পর পরস্পরের সাথে শুভেচ্ছা বিনিময়ের মাধ্যমে মানবিক গুনাবলী অর্জন করা । বিশ্বের সকল মুসলমান যাতে সমভাবে ঈদের আনন্দ উপভোগ করতে পারে সে জন্য রমজান মাসে বেশি বেশি করে দানখয়রাতকে ইসলাম ধর্মে ঊৎসাহিত করা হয়েছে । ঈদ হচ্ছে মুসলমানের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব । কিন্তু সময়ের পরিক্রমায় এই উৎসব এখন আর শুধু মুসলমান সম্প্রদায়ের মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকেনি । বিস্থৃত হয়েছে ভিন্ন ধর্মাম্বলম্বীদের মধ্যেও । ঈদের আনন্দে এখন সকল ধর্মের মানুষ শরিক হয় বলে এটা এখন সার্বজনীন উৎসবে পরিণত হয়েছে ।

ঈদ এলে ঘরে ঘরে বিশেষ করে শিশু কিশোরদের মাঝে নতুন জামা কাপড় কেনার ধুম পড়ে । কিন্তু তাই বলে ঈদ শুধু নিছক পোষাকি উৎসব নয় । ঈদের দুটো মাহাত্ম রয়েছে । একটি হচ্ছে সিয়াম সাধনার মাধ্যমে আত্ন শুদ্ধি অর্জন আর অন্যটি হচ্ছে অসচ্চল ও অবহেলিত মানুষের অধিকার নিশ্চিত করন । ঈদ উপলক্ষে বেতার ও টেলিভিশনে বিশেষ অনুষ্ঠান মালা প্রচার করে । সংবাদপত্র সমুহ প্রকাশ করে বিশেষ ক্রোড়পত্র । সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন আয়োজন করে জমকালো অনুষ্টানের।অনেক দেশে জেল ও হাসপাতালে বিতরন করা হয় উন্নতমানের খাবার । সরকারি ও বেসরকারি ভবন সমুহে আলোকসজ্জা করা হয় । ঘরে ঘরে তৈরী করা হয় মুখরোচক খাবার । ঈদ এলে কেহ আনন্দ পান ভোগে আবার কেহ আনন্দ পান দানে । আর এভাবে মুসলিম সম্প্রদায় নানা আয়োজনে ও নানা ভাবে উদযাপন করে দিনটি । ঈদের দিন সকালে মুসলমানরা ধনী গরিব নির্বিশেষে একই কাতারে দাড়িয়ে ঈদগাহে ঈদের নামাজ আদায় করে থাকে । নামাজ শেষে অতীতের সকল গ্লানি ভুলে গিয়ে একে অপরের সাথে কোলাকুলি করে । এটাই ঈদের শিক্ষা । কিন্তু প্রাণঘাতি করোনাভাইরাসের কারণে ঈদগাহ ও মসজিদ বন্ধ থাকায় অনেক দেশেই এবার ঈদের নামাজ হচ্ছে না । স্বাস্থগত বিধি নিষেধের কারণে কোলাকুলিও করা যাবে না । বিভিন্ন দেশে লকডাউন থাকায় বন্ধ রয়েছে মার্কেট ও শপিংমল । ফলে ঈদের নতুন কাপড় কেনার সুযোগ থেকেও অনেকেই হবে বঞ্চিত । মুসলমানরা এমন সাদা মাটা ও এক গেয়ে ঈদ আর কখনো পালন করছে কিনা জানা নেই । বৈশ্বিক এই মহামারী লন্ড ভন্ড করেছে পুরো পৃথিবী ও মানব সভ্যতা।ফলে মুসলমানদের হাজার বছরের গড়া ঈদ সংস্কৃতি ও ঐতিহ্যে দেখা দিয়েছে ছন্দ পতন । এই নিউইয়র্কে বাংলাদেশী কমিউনিটি হারিয়েছে প্রায় তিন শতাধিক লোক । অনেকেই রয়েছেন এখনো অসুস্থ। ফলে ঘরে ঘরে বিরাজ করছে বিষাদের ছায়া । তাছাড়া দীর্ঘ দিন যাবৎ ব্যবসা বানিজ্য ও কাজ কর্ম বন্ধ থাকায় অর্থনীতিতে দেখা দিয়েছে স্থবিরতা । নিম্ন আয়ের মানুষরা এই মুহুর্তে সবচেয়ে বেশী সমস্যা পীড়িত । অনেকের ঘরে নেই দুমোটো অন্নের সংস্থান । এই মুহুর্তে সকলের উচিত বিপন্ন ও অসহায এই সকল মানুষের পাশে দাড়ানো । সকল ভয় ভীতি ও আতংকে জয় করে আমরা যদি এবারের ঈদে ক্ষুদার্থ অসহায় মানুষের মুখে হাঁসি ফুটাতে পারি তাহলে ঈদের আনন্দ ও উদ্দেশ্য সার্থক হবে ।

আহবাব চৌধুরী খোকন :  সমাজকর্মী ও কলাম লেখক, নিউইয়র্ক

আরও পড়ুন



ক্যান্সার রোগীকে আর্থিক সহায়তা প্রদান

সিলেট এক্সপ্রেস ডেস্ক: ধারাবাহিক বিভিন্ন...

আওয়ামী লীগে যোগ দিলেন কাউন্সিলর সিকন্দর আলী

সিলেট এক্সপ্রেস ডেস্ক: দীর্ঘ একযুগ...