আহবাব রচনাসমগ্র-১-এর প্রকাশনা অনুষ্ঠান

প্রকাশিত : ০৪ জানুয়ারি, ২০২০     আপডেট : ৩ মাস আগে  
  

সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের রেজিস্ট্রার অব কপিরাইট জাফর রাজা চৌধূরী বলেছেন, প্রখ্যাত লেখক দেওয়ান আহবাব চৌধুরী ছিলেন একজন ত্যাগী-বিনয়ী মানুষ। তিনি ছিলেন সমাজের মানুষের উন্নয়নে এক নিবেদিতপ্রাণ ব্যক্তিত্ব। বিপুল বিত্তের অধিকারী হওয়া সত্বেও তিনি ছিলেন ত্যাগের আদর্শে মহীয়ান। আজকের সমাজে দেওয়ান আহবাবের মতো ত্যাগী মানুষের খুবই প্রয়োজন।
উপমহাদেশের প্রখ্যাত রাজনীতিবিদ আসামের সাবেক এমএলএ দেওয়ান আহবাব চৌধূরী বিদ্যাবিনোদ-এর রচনাবলীর প্রথম সংকলন দেওয়ান আহবাব রচনাসমগ্র-১-এর প্রকাশনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন। দেওয়ান আহবাব স্মৃতিপর্ষদ-এর উদ্যোগে পর্ষদের আহ্বায়ক দেওয়ান চৌধূরী মাহদির সভাপতিত্বে গতকাল শনিবার নগরীর শহিদ সোলেমান হলে অনুষ্ঠিত সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ গার্ল গাইডের সাবেক জাতীয় কমিশনার জেবা রশীদ চৌধুরী, কেন্দ্রীয় মুসলিম সাহিত্য সংসদের সাবেক সভাপতি রাগিব হোসেন চৌধুরী, সাবেক সভাপতি হারুনুজ্জামান চৌধুরী, সিলেট জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি এমাদ উল্লাহ শহীদুল ইসলাম শাহীন এবং মূখ্য আলোচক হিসেবে বক্তব্য রাখেন দৈনিক সিলেটের ডাক-এর নির্বাহী সম্পাদক আবদুল হামিদ মানিক। রচনাসমগ্র-এর প্রধান সম্পাদক সেলিম আউয়ালের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন গবেষক সৈয়দ মবন্ ুএবং আলোচনায় অংশ নেন বীর মুক্তিযোদ্ধা এডভোকেট মুজিবুর রহমান চৌধুরী, লে.কর্নেল সৈয়দ আলী আহমদ (অব.), কেমুসাস-এর সাধারণ সম্পাদক দেওয়ান মাহমুদ রাজা চৌধুরী, কবি মুকুল চৌধুরী, দেওয়ান তাসিন রাজা শাফী। সভার শুরুতে কোরআন তেলাওয়াত করেন সাহিত্যকর্মী আবদুল কাদির জীবন।
রেজিস্ট্রার অব কপিরাইট জাফর রাজা চৌধূরী আরো বলেন, আমাদের সমাজে স্পষ্টভাষী মানুষের খুবই অভাব। কিন্তু দেওয়ান আহবাব ছিলেন একজন স্পষ্টভাষী মানুষÑতার প্রমাণ তিনি রেখেছেন তার লেখায়, রাজনীতিসহ সার্বিক আচরণে।
মূখ্য আলোচকের বক্তব্যে দৈনিক সিলেটের ডাক-এর নির্বাহী সম্পাদক আবদুল হামিদ মানিক বলেন, বহুমুখী-বহুমাত্রিক প্রতিভার অধিকারী ছিলেন দেওয়ান মোহাম্মদ আহবাব। তিনি ছিলেন অগ্রসর চিন্তায় সুশিক্ষিত একজন মানুষ। তার সময়ের অনগ্রসর মুসলিম সমাজকে জাগিয়ে তোলার জন্যে তিনি নিরলস প্রচেষ্টা চালিয়েছেন। বিশেষ করে মুসলমানদের অগ্রগতির জন্যে তিনি ইসলামকে অনুসরণের উপর গুরুত্ব দিয়েছেন। সুন্দর সমাজ বিনির্মাণের জন্যে আমাদের সমাজে দেওয়ান আহবাবের মতো মানুষের আরো বেশী বেশী প্রয়োজন।
বাংলাদেশ গার্ল গাইডের সাবেক জাতীয় কমিশনার জেবা রশীদ চৌধুরী বলেন, দেওয়ান আহবাবের পরিবারের সদস্যরা সাহিত্য-সংস্কৃতি চর্চায় নিবেদিতপ্রাণ ছিলেন। তারা ছিলেন উদার মনের মানুষ।
কেন্দ্রীয় মুসলিম সাহিত্য সংসদের সাবেক সভাপতি রাগিব হোসেন চৌধুরী বলেন, দেওয়ান আহবাবের রচনা সংকলিত করে প্রকাশ করার উদ্যোগকে স্বাগত জানাচ্ছি। আমাদের স্বার্থেই দেওয়ান আহবাবের রচনাসমগ্র প্রকাশ করতে হবে।
সিলেট জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি এমাদ উল্লাহ শহীদুল ইসলাম শাহীন বলেন, আমরা যদি আমাদের ইতিহাস চর্চা না করি, তাহলে আমরা আমাদের গৌরবজনক ইতিহাস ভুলে যাব, অনেক অনিচ্ছাকৃত ভুল হবে। এই প্রেক্ষাপটে দেওয়ান আহবাব রচনাসমগ্র প্রকাশ একটি মহতী উদ্যোগ।
কেমুসাস-এর সাধারণ সম্পাদক দেওয়ান মাহমুদ রাজা চৌধুরী বলেন, দেওয়ান আহবাব ছিলেন উপমহাদেশের প্রখ্যাত রাজনীতিবিদ, ইসলামি চিন্তাবিদ। রাজনীতি ছিলো তার কাছে মানব কল্যাণের হাতিয়ার।
মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন গবেষক সৈয়দ মবন্ ুবলেন, আমরা ভুলতে বসেছিলাম আমাদের সিলেট-আসাম অঞ্চলের এমন এক ব্যক্তিত্বকে যিনি সাহিত্যে, সমাজ সংস্কাওে, সমাজসেবায়, রাজনীতিতে কিংবা ধর্মীয় বিষয়াদিও জ্ঞান-প্রজ্ঞায় তাঁর সময়ে ছিলেন বিশিষ্ট এবং অনন্য। জমিদারও ছিলেন বটে, তবে জমিদারি শাসন কিংবা শোষণের ভাব ছিলো না।
সভাপতির বক্তব্যে দেওয়ান চৌধূরী মাহদি বলেন, মানবপ্রেমিক দেওয়ান আহবাবের রচনাসমগ্র প্রকাশের পাশাপাশি আমরা সাহিত্য সংসদেও তরুণ লেখকদের জন্য প্রতি মাসে সাহিত্য পুরস্কার প্রদান ও আগামী বছর থেকে সাহিত্য সাধনার জন্যে দেওয়ান আহবাব স্বর্নপদক প্রবর্তন করবো।

আরও পড়ুন



যুক্তরাষ্ট্রে পবিত্র ঈদুল ফিতর উদযাপিত

যুক্তরাষ্ট্রে ধর্মীয় উৎসব আমেজে উদযাপিত...

খেলাধুলা জয় পরাজয় মেনে নেয়ার মানসিকতা তৈরি করে

সিলেট এক্সপ্রেস ডেস্ক: সিলেট কৃষি...