আর মাত্র কয়েকটা দিন পরেই শারদীয় দুর্গা পূজা

প্রকাশিত : ০২ অক্টোবর, ২০১৯     আপডেট : ৪ মাস আগে  
  

আর মাত্র কয়েকটা দিন পরেই শারদীয় দুর্গা পূজা। এরই মধ্যেই শ্রীমঙ্গলের পূজা মন্ডপগুলোতে প্রতিমা তৈরী ও প্যান্ডেল বানানোর কাজ প্রায় শেষ পর্যায়ে। শেষ মুহুত্বে এসে এখন ব্যস্ত সময় পাড় করছেন সবাই। বিশেষ করে প্রতিমা তৈরির মৃৎশিল্পীরা দিনরাত কাজ করে প্রতিমার কাজ শেষ করছেন। এবার সার্বজনীন ও ব্যক্তিগত মিলিয়ে শ্রীমঙ্গলের ১৬৭ মন্ডপে পুজিত হবেন দেবী দূর্গা।

সরেজমিনে শ্রীমঙ্গলের শাপলাবাগ, সবুজ বাগ, মাস্টারপাড়া, লালবাগ, রামনগরসহ বেশ কিছু পূজা মন্ডপ ঘুরে দেখা গেছে পূজার আয়োজকদের শেষ মুহুত্বের ব্যবস্থা। প্রতিমা শিল্পীর কল্পনায় দেবী দুর্গার অনিন্দ্যসুন্দর রুপ দিতে রাতভর চলছে প্রতিমা তৈরির কাজ। ইতিমধ্যে প্রতিমার কাঠামোর মাটির কাজ প্রায় শেষে রঙ করার কাজে হাত দিয়েছেন তারা। পূজা ঘনিয়ে আসার সাথে বাড়ছে কাজের ব্যবস্থা। দম ফেলার ফুরসত নেই তাদের। সাথে ডেকোরেশনের লোকেরা মন্ডপ ও তোরণ করতে রোদ বৃষ্টি উপেক্ষা করে কাজ করছেন।
শাপলাবাগ স্বরলীপি সংঘের প্রতিমা নির্মাণ করছেন হনু পাল নামের মৃৎশিল্পী তিনি বলেন, পূজা উপলক্ষে শ্রীমঙ্গলসহ বেশ কিছু জায়গা থেকে প্রতিমার অর্ডার নিয়েছেন তিনি। পূজার বেশী দিন বাকি না থাকায় রাত দিন সহযোগীদের নিয়ে কাজ করে যাচ্ছেন। যেহুতু ৪ অক্টোবর ষষ্ঠী পূজার মাধ্যমে দুর্গাপূজা শুরু হবে। তাই ৪ তারিখের আগেই সব প্রতিমার কাজ শেষ করতে হবে।

বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ শ্রীমঙ্গল পৌর শাখার সভাপতি সনজয় রায় বলেন, প্রতিবছরই দেশের বিভিন্ন জায়গা থেকে শ্রীমঙ্গল শহরে মানুষ পূজা দেখতে আসে। এবার পুরো উপজেলায় ১৬৭টি মন্দিরে দুর্গা পূজা অনুষ্ঠিত হবে। এর মধ্যে ১২ টি ব্যক্তিগত পূজা। আমরা পূজার নিরাপত্তা ব্যবস্থার জন্য প্রশাসনের সাথে আলোচনা করেছি।

সনাতন সেবা সংস্থা বৈদিক এর মুখপাত্র অপিক দেব বলেন, শ্রীমঙ্গলে দূর্গাপূজায় এক উৎসবমুখর পরিবেশের অবতারণা হয়। বিভিন্ন জায়গা থেকে ভক্তরা পুজা দেখতে আসেন। অসাধারণ সব মণ্ডপ সজ্জা, উৎসবমুখর পরিবেশই শ্রীমঙ্গলে দুরদুরান্তের ভক্তদের টেনে আনে। পূজা উপলক্ষে পারষ্পরিক সৌহার্দ্য সম্প্রীতির যে মেলবন্ধন রচিত হয় তা এক কথায় নজিরবিহীন।

বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ শ্রীমঙ্গল উপজেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক সুশীল শীল বলেন, প্রতিটি পূজা মন্ডপের সভাপতি সাধারণ সম্পাদকদের নিয়ে শুক্রবার ২৭ সেপ্টেম্বর সভার আয়োজন করা হয়। এখানে প্রশাসনের লোকজনও ছিলেন। কোন পূজা মন্ডপে সমস্যা যাতে কেউ না করে সে ব্যাপারে নজর রাখছি।
শ্রীমঙ্গল থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুছ ছালেক বলেন, দুর্গা পূজা উপলক্ষে বড় বড় পূজা মন্ডপগুলোতে পুলিশ মোতায়েন করা হবে। সার্বজননীন প্রতিটি পুজা মন্ডপে পুলিশের পাশাপাশি আনসার ভিডিপির সদস্যরা থাকবে। এছাড়াও আমাদের টহল টিম ও সাদা পোশাকের পুলিশ প্রতিটি এলাকা নজরদারী রাখবে। যে পূজা মন্ডপগুলোতে লোকসমাগম বেশী হয় সেগুলোতে পর্যাপ্ত আলো ও সিসিটিভি ক্যামেরা বসানোর জন্য আয়োজকদের বলা হয়েছে। শহরের যানজট কমাতে ৪ অক্টোবর থেকে ৮ অক্টোবর পর্যন্ত শহরের সিএনজি, টমটম ইত্যাদির স্ট্যান্ড শহরের বাহিরে নিয়ে যাওয়া হবে। রেজিষ্ট্রেশন বিহীন মোটরসাইকেল গুলো নিয়ে কেউ বের হলে আমরা কঠোর ব্যবস্থা নিবো

আরও পড়ুন



চলে গেলেন অধ্যক্ষ হুসন আরা আহমদ

সিলেট এক্সপ্রেস ডেস্ক: চলে গেলেন...

সমাপনীতে মৌলভীবাজারে মোট পরিক্ষার্থী ৪৭২৮২ জন

এইচ এম সামাদ:মৌলভীবাজার: আগামী রোববার...

আহত বিএনপির এজেন্ট সুমনকে দেখতে আরিফ

সিলেট এক্সপ্রেস ডেস্ক: ৩০ জুলাই...