আবৃত্তি শিক্ষন-প্রচার ও প্রসারে মুক্তাক্ষর প্রাঞ্জল ভূমিকায় সচেষ্ট

,
প্রকাশিত : ২৪ জুন, ২০২১     আপডেট : ১১ মাস আগে

বাংলাদেশ মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের কিশোর কিশোরী ক্লাব স্থাপন প্রকল্পের আবৃত্তি শিক্ষক নিয়োগের মধ্য দিয়ে মুক্তাক্ষরের এক ঝাঁক সিনিয়র শিক্ষার্থীরা তাদের সাফল্য অর্জন দেখিয়েছে। বুধবার (২৩ জুন) আবৃত্তি শিক্ষক হয়ে পরিক্ষার মাধ্যমে মনোনিতরা সিলেট ও বিয়ানীবাজার উপজেলায় যোগদান পত্র জমা দিয়েছেন।
মুক্তাক্ষর এর সিলেট থেকে দিপীকা দেব রায় মৌ ও হিমেল মাহমুদ এবং বিয়ানীবাজার মুক্তাক্ষর দাসগ্রাম শাখা থেকে সৃজন কর, পুষ্পাঞ্জলি কর প্রেমা, তৃষা কর, শর্মী চক্রবর্তী ও সংগীতা চক্রবর্তী, নয়াগ্রাম শাখা থেকে আশরাফ আহমদ শাফি ও অনুশ্রী চন্দ তুলি।
তারা বিভিন্ন উপজেলায় স্কুল শিক্ষার্থী কিশোর কিশোরীদের বাংলা শুদ্ধ উচ্চারণ নিয়মের সাথে আবৃত্তি কলাকৌশল প্রশিক্ষণের মাধ্যমে সবাইকে বুঝিয়ে শিখিয়ে দেয়া হবে ক্লাব প্রকল্পের মাধ্যমে।
মুক্তাক্ষর এর প্রতিষ্ঠাতা, পরিচালক ও প্রধান প্রশিক্ষক বিমল কর বর্তমান ও আগামী প্রজন্মের কাছে আবৃত্তিকে পৌঁছে দেয়ার আশাবাদী বলেন বাংলাদেশের প্রতিটি জেলার ইউনিয়নের মত সিলেটের প্রতিটি ইউনিয়ন আবৃত্তিকে হৃদয়ে লালন করে বাংলায় শুদ্ধতায় শহরের সাথে গ্রামও এগিয়ে আসুক। জয় হোক আবৃত্তির জয় হোক বাচিক শিল্পের।


আরও পড়ুন