আন্দোলনে উত্তাল যুক্তরাস্ট্রঃ রাজ্যে রাজ্যে জনতার ঢল

,
প্রকাশিত : ০৭ জুন, ২০২০     আপডেট : ২ বছর আগে

এমদাদ চৌধুরী দীপু(নিউইয়র্ক)
যুক্তরাস্ট্রে আন্দোলন ক্রমেই তীব্র হচ্ছে।প্রতিটি রাজ্য,ছোটবড় শহর এখন মিছিল,সমাবেশের শহর। রাস্তায় জনতার ঢল নামছে স্বতঃস্ফ’র্তভাবে।এসব কর্মসূচীতে অংশ নিচ্ছেন সাদা-কালো মানুষ। বড়দের সাথে যুক্ত হচ্ছেন শিশুরা। এ পর্যন্ত আটক এর সংখ্যা ১২ হাজার। টানা ১১দিন ধরে চলা এই আন্দোলনে স্বাভাবিক জীবন স্থবির হয়ে আছে। অর্ধলক্ষাধিক মানুষ অংশ নিচ্ছেন কোন কোন সমাবেশে। শুধু কৃঞ্চাঙ্গ হত্যার প্রতিবাদই নয় একটি পরিবর্তনের দাবী তুলছেন আন্দোলনকারীরা। এই আন্দোলন দমন করতে ১০ হাজার সৈন্য মোতায়েনের কথা বলেছেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প। ট্রাম্পের বিতর্কিত বক্তব্য এবং উদ্যোগের জন্য সমালোচনার ঝড় বইছে যুক্তরাজ্যজুড়ে।
প্রশাসনে চেইন অব কমান্ড ভেঙ্গে পড়েছে। নিউইয়র্ক এর বাফেলো কাউন্টির পুলিশের একটি উইনিটের ৫৭ সদস্য পদত্যাগ করেছেন। এই ইউনিটের দুই সদস্যকে সাসপেন্ড করার প্রতিবাদে পদত্যাগ করেছেন তারা। এদিকে এনওয়াপিডি চীফ,নিউইয়র্ক এর গভর্নর,মেয়র দুরত্ব ক্রমেই বাড়ছে। ব্যর্থতার দায় নিয়ে নিউইয়র্ক এর ডি ব্লাজিওকে পদত্যাগ করার দাবী জানিয়েছেনসাবেক এক মেয়র।
ওয়াল্ডোমেটারের তথ্যমতে গত ২৪ ঘন্টায় যুক্তরাস্ট্রে শনাক্ত হয়েছেন প্রায় ২৩ হাজার, শুধু নিউইয়র্কে শনাক্ত হয়েছেন ১১শ ।যুক্তরাস্ট্রে করোনায় শনাক্ত এখন ১৯লাখ ৮৮ হাজার এর উপরে,এটি একদিন আগে ছিল ১৯ লাখ ৬৫ হাজার। যুক্তরাস্ট্রে,মৃত্যু কমেছে,গত ২৪ ঘন্টায় মারা গেছেন ৭শ জন,নিউইয়র্কে মৃত্যু একদিনে ২৯ জন। এদিকে ২৪ ঘন্টায় যুক্তরাস্ট্রে সুস্থ হওয়ার সংখ্যা ১৩ হাজারের উপরে।শুক্রবারে জ্যাকসনহাইটসে বাংলাদেশীদের উদ্যোগে টেস্টিং অনুস্টিত হবে,এর ব্রুকলীনে আয়োজিত টেস্টিং ক্যাম্পে ৪শতাধিক বাংলাদেশী অংশ নেন।
এদিকে রাত ৮টা থেকে ভোর ৫টা পর্যন্ত কার্ফ্যু বলবৎ আছে। যুক্তরাস্টজুড়ে বর্নবাদ ইস্যুতে চলমান আন্দোলনের জন্য নিউইয়র্কে এটি ৭জুন পর্যন্ত চলবে। আজো নিউইয়র্কসহ সব বড় বড় শহরে বিক্ষোভ হয়েছে।
যুক্তরাস্ট্রের লসএ্যান্জেলস শহর,শিকাগো শহর,ফিলাডেলফিয়া,ওয়াশিংটনডিসি এখন কাপছে শ্লোগানে শ্লোগানে। এদিকে বড় বড় সমাবেশ শোভাযাত্রা অব্যাহত রয়েছে নিউইয়র্ক এর ম্যানহাটন,ব্রুকলীরন,কুইন্স হারলেমসহ বিভিন্ স্থানে। ঐতিহাসিক ব্রুকলীনব্রীজসহ যুক্রাস্ট্রজুড়ে বিভিন্ন সেতু আন্দোলনকারীরা অতিক্রম করছেন মিছিলসহকারে নানা দাবীতে।
সতর্ক অবস্থায় রয়েছে ন্যাশনাল গার্ডসহ স্ব-স্ব সিটির পুলিশ সদস্যরা। টহল অব্যাহত আছে। এছাড়া সাদা পোষাকে আন্দোলনকারীদের অনুস্মরন করছে বিভিন্ন বাহিনী এবং এজেন্সীর সদস্যরা। লুটপাট ডাকাতি এড়াতে ব্যবসায়ীরা নিচ্ছেন বাড়তি সতর্কতরা,সহজে প্রবেশের সুযোগ বন্ধ করে দিচ্ছেন তারা।


আরও পড়ুন