আগস্টের প্রথম ৮ দিনে করোনা শনাক্ত ৫ হাজার ৭০৬ জনের

,
প্রকাশিত : ০৯ আগস্ট, ২০২১     আপডেট : ১০ মাস আগে

সিলেট বিভাগে আগস্টের প্রথম ৮ দিনে করোনা পজিটিভ শনাক্ত হয়েছে ৫ হাজার ৭০৬ জনের। এসময় মৃত্যু হয়েছে ৯৫ জন ও সুস্থ ২ হাজার ৫২২ জন। বিভাগে গড়ে প্রতিদিন ৭১৩ জন আক্রান্ত, ১১ জন মৃত্যু ও ৩১৫ জন সুস্থ হয়েছেন।
এসময়ে শুধু সিলেট জেলায় আক্রান্ত হয়েছে ৩ হাজার ১২০ জন আর মৃত্যু হয়েছে ৭৪ জন ও সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ৬৩৪। সিলেট জেলায় গড়ে প্রতিদিন ৩৯০ জন করে আক্রান্ত, ১১ জন করে মৃত্যু ও ২০৪ জন করে সুস্থ হয়েছেন।
গত জুলাই মাসে করোনা শনাক্তের সংখ্যা ছিল ১৩ হাজার ৬৭৪ জন। আর মৃত্যু ছিল ২২০ জন। জুলাইয়ে গড়ে প্রতিদিন আক্রান্ত ছিল ৪৪১ জন আর মৃত্যু ছিল গড়ে ৭ জন করে। সে হিসেবে জুলাই মাস থেকে আগস্ট মাসে আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা বেশি দেখা যায়।
স্বাস্থ্য বিভাগের তথ্য মতে, ১ আগস্ট সিলেট বিভাগে আক্রান্তে রেকর্ড হয়। সেদিন বিভাগে আক্রান্ত ছিল ৯৯৬ জন। আর মৃত্যুতে রেকর্ড ছিল ৪ আগস্ট ২০ জন।

তথ্য অনুযায়ী শুধু সিলেট জেলায় ১ আগস্ট ৯৭৫ জনের নমুনা পরীক্ষায় ৩৯৯ জন শনাক্ত হয়। শনাক্তের হার ৪০ দশমিক ৯২ ভাগ। এদিন মৃত্যু ৭ জন ও সুস্থ ২০৮ জন।
২ আগস্ট ১০৩২ জনের নমুনা পরীক্ষায় ৪৭৯ জন আক্রান্ত হয়। শনাক্তের হার ৪৬ দশমিক ৪১ ভাগ। মৃত্যু ১০ জন ও সুস্থ ২৪৪ জন।
৩ আগস্ট ১১৯৫ জনের নমুনা পরীক্ষায় ৪০৬ জনের করোনা শনাক্ত হয়। শনাক্তের হার ৩৩ দশমিক ৯৭ ভাগ। এদিন ১০ জন মারা যান আর সুস্থ হন ২৫৬ জন।
৪ আগস্ট ১১৬৭ জনের নমুনা পরীক্ষায় ৪৫৪ জনের করোনা শনাক্ত হয়। শনাক্তের হার ৩৮ দশমিক ৯০ ভাগ। এদিন মারা যান জেলায় সর্বোচ্চ ১৬ জন ও সুস্থ হন ২৩৩ জন।
৫ আগস্ট ১০১২ জনের নমুনা পরীক্ষায় ৪৪৫ জনের করোনা শনাক্ত হয়। শনাক্তের হার ৪৩ দশমিক ৯৭ ভাগ। আর মারা যান ১২ জন ও সুস্থ ২০৬ জন।
৬ আগস্ট ১০৯৬ জনের নমুনা পরীক্ষায় ৪৬৫ জনের করোনা শনাক্ত হয়। শনাক্তের হার ৪২ দশমিক ৪৩ ভাগ। এসময় মারা যান ১৩ জন ও সুস্থ হন ১৬০ জন।
৭ আগস্ট ৫৭৪ জনের নমুনা পরীক্ষায় ১৮২ জনের দেহে করোনা পজিটিভ ধরা পড়ে। আক্রান্তের হার ৩১ দশমিক ৭১ ভাগ। আর মারা যান ৪ জন ও সুস্থ হন ৮৫ জন।
৮ আগস্ট সিলেটে ৯০১ জনের নমুনা পরীক্ষায় ২৯০ জন করোনা ধরা পড়ে। করোনায় আক্রান্তের হার ৩২ দশমিক ১৯ ভাগ।
এদিকে, সিলেট বিভাগে মহামারি করোনাভাইরাসে গত ২৪ ঘন্টায় (শনিবার সকাল ৮টা থেকে গতকাল রোববার সকাল ৮টা পর্যন্ত) ৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। শনাক্ত হয়েছে ৫৯১ জনের। এ সময় ১৯০৮ জনের নমুনা পরীক্ষায় উল্লেখিতদের শনাক্ত হয়। শনাক্তের হার ৩০ দশমিক ৯৭ ভাগ। এ সময়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন ৮১ জন। আর করোনা থেকে মুক্ত হয়েছেন ৪৭৩ জন।
স্বাস্থ্য বিভাগের বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, নতুন শনাক্ত ৫৯১ জনের মধ্যে সিলেট জেলার ২৮৯ জন, সিলেট ওসমানী হাসপাতালের ১ জন, সুনামগঞ্জ জেলার ৭১ জন, হবিগঞ্জ জেলার ৪২ জন ও মৌলভীবাজার জেলার ১৮৮ জন।
আর, গত ২৪ ঘণ্টায় সিলেট বিভাগে মারা যাওয়া ৭ জনের মধ্যে সিলেট জেলার ২ জন, সুনামগঞ্জ জেলায় ৩ জন, হবিগঞ্জের ১ জন ও মৌলভীবাজারে ১ জন। এ পর্যন্ত সিলেট বিভাগে করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন মোট ৭৮৮ জন। এর মধ্যে সিলেট জেলায় ৫৯০ জন, সিলেট ওসমানী হাসপাতালে ৩৮ জন, সুনামগঞ্জ জেলার ৫৮ জন, হবিগঞ্জ জেলার ৩৯ জন ও মৌলভীবাজার জেলায় ৬৩ জন।
স্বাস্থ্য বিভাগের তথ্য অনুযায়ী, এ ২৪ ঘণ্টায় সিলেট বিভাগের মধ্যে সিলেট জেলার ৪৯ জন, ওসমানী হাসপাতালের ১৮ জন, সুনামগঞ্জ জেলায় ৫ জন ও মৌলভীবাজার জেলার ৯ জন করোনা রোগী হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। চার জেলায় বর্তমানে হাসপাতালে ভর্তি আছেন ৪৯৭ জন। এর মধ্যে সিলেট জেলায় ৩৫৮ জন, সুনামগঞ্জ জেলায় ৬১ জন, হবিগঞ্জ জেলায় ৪৮ জন ও মৌলভীবাজার জেলায় ৩০ জন।
এছাড়া, সিলেট এমএজি ওসমানী হাসপাতালে ভর্তি রোগীর সংখ্যা ২৮৭ জন। এর মধ্যে ১৫৬ জন সন্দেহজনক, ১২২ জন পজিটিভ ও ৯ জন আইসিউ তে ভর্তি।
গতকাল রোববার সকাল ৮টা পর্যন্ত করোনামুক্ত ৪৭৩ জনের মধ্যে সিলেট জেলার ২২৭ জন, সিলেট এমএজি ওসমানীহাসপাতালে ১৫ জন, সুনামগঞ্জ জেলার ৫৫ জন, হবিগঞ্জ জেলার ২৭ জন ও মৌলভীবাজার জেলায় ১৪৯ জন।
এই ২৪ ঘণ্টায় সিলেট জেলায় ৯০১ জনের নমুনা পরীক্ষায় ২৯০ জনের করোনা শনাক্ত হয়। শনাক্তের হার ৩২ দশমিক ১৯ শতাংশ। সুনামগঞ্জ জেলায় ২৫৬ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ৭১ জন শনাক্ত হয়। শনাক্তের হার ২৭ দশমিক ৭৩ শতাংশ। হবিগঞ্জ জেলায় ১৬২ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ৪২ জন শনাক্ত হয়। শনাক্তের হার ২৫ দশমিক ৯৩ শতাংশ এবং মৌলভীবাজার জেলায় ৫৮৯ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ১৮৮ জন শনাক্ত হয়। শনাক্তের হার ৩১ দশমিক ৯২ শতাংশ।
এ পর্যন্ত সিলেট বিভাগে করোনা শনাক্ত রোগীর সংখ্যা হচ্ছে ৪৫ হাজার ১৬২ জন। এর মধ্যে সিলেট জেলার ২৪ হাজার ৪১৮ জন, ওসমানী হাসপাতালে ৩ হাজার ৬৩৯ জন, সুনামগঞ্জ জেলার ৫ হাজার ২২১ জন, হবিগঞ্জ জেলার ৫ হাজার ৪৪১ জন ও মৌলভীবাজার জেলার ৬ হাজার ৪৪৩ জন।
অন্যদিকে, সিলেট বিভাগে করোনামুক্ত হয়েছেন ৩৩ হাজার ৬০ জন। এর মধ্যে সিলেট জেলার ২২ হাজার ৩২১ জন, ওসমানী হাসপাতালে ২৭১ জন, সুনামগঞ্জ জেলার ৩ হাজার ৫৬০ জন, হবিগঞ্জ জেলার ২ হাজার ৬৬৩ জন ও মৌলভীবাজার জেলার ৪ হাজার ২৪৫ জন।
জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা জানান, সঠিকভাবে স্বাস্থ্যবিধি মানা বিশেষ করে মাস্ক পরিধান করা, সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা আর জনসমাগম এড়িয়ে চললে তবে করোনা মহামারি থেকে মুক্তি পাওয়া যাবে।


পরবর্তী খবর পড়ুন : রিভলবারসহ গ্রেফতার ১

আরও পড়ুন