অসহায় ও অসচ্ছল প্রকৃত প্রতিবন্ধীদের মাসিক ভাতা বৃদ্ধির জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টি কামনা

প্রকাশিত : ১৬ জানুয়ারি, ২০২০     আপডেট : ৪ মাস আগে  
  

সিলেট কল্যাণ সংস্থা ও সিলেট বিভাগ যুব কল্যাণ সংস্থার যৌথ আয়োজনে ১৫ জানুয়ারী বুধবার বেলা ২টায় সংস্থার কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে (হক মঞ্জিল, শাপলা-১০, উত্তর জল্লারপার, ০২ নং ওয়ার্ড, সিলেট সিটি কর্পোরেশন, সিলেট) প্রতিবন্ধীদের অধিকার সুনিশ্চিতের লক্ষ্যে দাবী উপস্থাপনের কার্যক্রম পরিচালনার ক্ষেত্রে প্রতিবন্ধীদের নিয়ে পরবর্তী কমূসূচী প্রণয়নের লক্ষ্যে আয়োজিত আলোচনা সভায় বক্তারা বলেন, প্রতিবন্ধীরা কোন ভাবেই ভিক্ষাবৃত্তির মাধ্যমে জীবিকা নির্বাহ করতে রাজি নয়। সরকারী পর্যায় থেকে পর্যাপ্ত মাসিক ভাতা না পাওয়ায় পঙ্গু প্রতিবন্ধীরা বাধ্য হয়ে ভিক্ষাবৃত্তির মতো অসুন্দর পেশা বেছে নিয়েছে। তারপরও যারা কর্মে ইচ্ছুক তারা অনেকেই বিভিন্ন পেশায় নিজেকে নিয়োজিত রেখেছে। নির্দিষ্ট গুটিকয়েক প্রতিবন্ধী ব্যাটারী চালিত রিক্সা চালিয়ে জীবিকা নির্বাহের চেষ্টা করছে। অথচ পুলিশ প্রশাসনের কতিপয় কর্মকর্তারা প্রায়শয় বাহনটি আটকিয়ে বিভিন্ন ধরণের জরিমানাসহ এই পেশা থেকে নিবৃত্ত থাকার ব্যাপারে চাপ প্রয়োগ করেন। সেই কতিপয় কর্মকর্তাদের আমরা কি করবো? জানতে চাইলে তিনি বলেন, ভিক্ষা করেন। আমরা কোন ভাবেই ভিক্ষা করতে চাইনা। মানুষের সহমর্মিতার কোন প্রয়োজন নেই, আমরা কর্ম করে জীবিকা নির্বাহ করতে চাই। পর্যাপ্ত পরিমাণে প্রতিবন্ধীদের জন্য মাসিক ভাতা বরাদ্দ করা হলে কোন ভাবেই প্রকৃত অসহায় প্রতিবন্ধীরা রাস্তায় নামবে না। এখনো অনেক প্রতিবন্ধীরা মাসিক ভাতা থেকে বঞ্চিত। মাঠ পর্যায়ে তাদেরকে বাছাই করে প্রতিবন্ধী ভাতার আওতায় আনার খুবই প্রয়োজন। বক্তারা আরো বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকীর এই মুজিববর্ষে একজন প্রতিবন্ধীর চলার জন্য মাসিক ভাতা বৃদ্ধির জন্য কার্যক্রম গ্রহণ বাংলাদেশের ইতিহাসে মাইলফলক হিসেবে থাকবে। অসহায় অসচ্ছল ও প্রকৃত প্রতিবন্ধীদের ভাতা বৃদ্ধির জন্য গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সুদৃষ্টি আলোচনা সভা থেকে বিশেষভাবে কামনা করা হয়।
গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছ থেকে জাতীয় যুব দিবস ২০১০-এ জাতীয় যুব পুরস্কার শ্রেষ্ঠ যুব সংগঠক পদকপ্রাপ্ত, দক্ষ, কর্মমূখী, গতিশীল যুব সমাজের স্বপ্নদ্রষ্টা ও ব্যতিক্রমধর্মী কর্মসূচীর উদ্ভাবক সিলেট বিভাগের সামাজিক যুব কার্যক্রমের কর্ণধার সংস্থাদ্বয়ের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি মোহাম্মদ এহছানুল হক তাহেরের সভাপতিত্বে ও সিবিযুকস’র বিভাগীয় কমিটির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক ও সিলেট জেলা কমিটির সাংগঠনিক সচিব এবং জাতীয় যুব দিবস ২০১৯ এ বিভাগীয় সফল যুব সংগঠক পদকপ্রাপ্ত সৈয়দ রাসেলের পরিচালনায় প্রতিবন্ধীদের মধ্য থেকে স্বাগত বক্তব্য রাখেন মোঃ ইব্রাহীম খলিল উল্লাহ। প্রতিবন্ধীদের অসহায়ত্ব উপস্থাপন করে বক্তব্য রাখেন মোঃ বাদশা মিয়া, গণি মিয়া, মোঃ মানিক মিয়া। উপস্থিত প্রতিবন্ধীদের মধ্য থেকে বক্তব্য রাখেন জোলহাস মিয়া, ছালে আহমদ, মোঃ সামছু উদ্দীন, জাহিনুর, নুর মিয়া, মোঃ বাবুল মিয়া, ওহিদ আহমদ লাভলু, আলী আজগর, মোঃ সিদ্দিকুর রহমান, সামীম আহমদ, মোঃ লিলু মিয়া, মোঃ শফিক, ইনতাজ আলী, জাকির আহমদ, মতিউর রহমান সারো, মুসাররফ করিম, সুনা সোনা মিয়া, মোঃ আব্দুল কাদির, মোঃ আব্দুল আহমদ, হারুনুর রশিদ, শাহ আলম, সুহেল আহমদ, দুলাল মিয়া, সাবাজ নুর, মোঃ আছদ্দর আলী, মন্নান আহমদ, শামীম মিয়া, মোঃ সেলিম মিয়া, মোঃ হাসান, মোঃ রিপন, মোঃ খায়রুল আহমদ, হোসেন মিয়া, ওয়াস কুরুনী, মোঃ খুকন আহমদ, মাইন উদ্দীন, তুতা মিয়া, মহিলা প্রতিবন্ধীদের মধ্য থেকে রেহেনা বেগম, বুরু বেগম, লায়েলা কাজী, নাছিমা খাতুন ও রুহুবজান। সভায় উপস্থিত সাংগঠনিক নেতৃবৃন্দ ও প্রতিবন্ধীদের মতামতের ভিত্তিতে আগামী ২৩ জানুয়ারি বৃহস্পতিবার বেলা ২টায় সিলেট কল্যাণ সংস্থার কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে প্রতিবন্ধীদের সমাবেশের মাধ্যমে পরবর্তী কর্মসূচী ঘোষণার মধ্য দিয়ে আলোচনা সভা সমাপ্ত হয়।

আরও পড়ুন



ট্যুর গাইড এসোসিয়েশন অফ গ্রেটার সিলেট এর কমিটি গঠন

 বৃহত্তর সিলেট বিভাগের ট্যুর গাইডদের...

ওসমানী হাসপাতালে শিক্ষামন্ত্রী ও মিসবাহ সিরাজ

শাবি প্রতিনিধি সিলেট সফররত শিক্ষামন্ত্রী...